বাড়ি-গাড়ি কিনেই দেড় কোটি টাকা ঋণ! তৃণমূলের তারকা প্রার্থী রাজ দেনায় ডুবে

একুশের মহারণ শুরু হয়ে গিয়েছে। এই যুদ্ধে “দিদি”র শক্তি বৃদ্ধি করছেন টলিউড পরিচালক রাজ চক্রবর্তী। চলতি দফায় দিদির হয়ে ভোটের লড়াই লড়ছেন রাজ। ব্যারাকপুর বিধানসভা কেন্দ্রের প্রার্থী তিনি। ভোটের প্রার্থী হিসেবে বাকিদের মতো তাঁকেও নির্বাচনের আগে নিজের মোট সম্পদ সংক্রান্ত তথ্যাবলী পেশ করতে হয়েছে। জানুন টলিউডের প্রযোজক এবং পরিচালক রাজ চক্রবর্তীর মোট সম্পত্তির পরিমাণ।

মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার পাশাপাশি রাজ তার সম্পদের যে খতিয়ান প্রকাশ করেছেন সেখান থেকে জানা গেল ২০১৮-১৯ অর্থবর্ষে রাজের বার্ষিক আয় হয়েছিল ৭০ লক্ষ ৯৭ হাজার ৭৩০ টাকা। এরপর ২০১৯-২০ অর্থবর্ষে রাজের বার্ষিক আয় হয় ৫৮ লক্ষ ২৭ হাজার ৯৭০ টাকা। রাজের পাশাপাশি তার স্ত্রী শুভশ্রীর মোট সম্পত্তির পরিমাণেরও উল্লেখ রয়েছে এই হলফনামায়।

রাজের পেশ করা হলফনামা থেকেই জানা গেল, ২০১৯-২০সালে শুভশ্রীর বার্ষিক আয় ছিল ১ কোটি ১৭ লক্ষ ২২ হাজার ৮৮০ টাকা। এছাড়াও বর্তমানে রাজের হাতে রয়েছে মাত্র ২৫ হাজার ৯০৬ টাকা এবং শুভশ্রীর হাতে নগদ রয়েছে ১৫ হাজার ৭২০ টাকা। এই মুহূর্তে রাজ্যের মোট সাতটি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট রয়েছে। যার মধ্যে যোধপুরপার্কে HDFC ব্যাঙ্কে ১ লক্ষ ১১ হাজার ৮৩৫ টাকা রয়েছে রাজের।

৩ কোটি ৩৯ লক্ষ ৩১ হাজার ৭৫ টাকার অস্থাবর সম্পত্তি রয়েছে রাজ চক্রবর্তীর নামে। তার স্ত্রী শুভশ্রীর নামে রয়েছে ৫ কোটি ৫৫ লক্ষ ৭ হাজার ৯৯৬ টাকার সম্পত্তি। এছাড়াও হালিশহরে১৩হাজার ৫০৩ স্কয়ার ফিটের একটি বাড়ি রয়েছে রাজের যার বর্তমান বাজার মূল্য ৬৮ লক্ষ ৭৩ হাজার ৩৩২ টাকা। পাশাপাশি, রাজডাঙায় ১৪১০ স্কয়ার ফিটের একটি অফিসও রয়েছে রাজের যার বর্তমান বাজার মূল্য ১ কোটি ৬৫ লক্ষ ৩৬ হাজার ৮৪০ টাকা।

এর সঙ্গেই আবার বাইপাসের ধারে এই সেলিব্রিটি দম্পতির একটি ১৭৭৮ স্কয়ার ফিটের ফ্ল্যাট রয়েছে যার বর্তমান বাজার মূল্য ৪ কোটি ৩৫ লক্ষ ৬৩ হাজার ৩১২ টাকা। শুভশ্রীর কাছে ৫২ লক্ষ ৩৩ হাজার ৬৮৩ টাকা মূল্যের ১৮৭ গ্রাম সোনার গয়নাও রয়েছে। তবে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ যে বিষয়টি তা হলো এত বিপুল পরিমাণ সম্পদের পাশাপাশি রাজের উপর ১ কোটি ৬১ লক্ষ ৪৯ হাজার ৩৮৮ টাকার আর্থিক দেনাও রয়েছে।