ষাঁড়ের গুঁতোতে প্রাণ গিয়েছে ব্যবসায়ীর, স্মরণসভায় চোখের জল ফেলছে অবলা প্রাণীটি, ভাইরাল ছবি

কে বলে পশুদের মানবিকতা বোধ নেই। পাশবিক প্রবৃত্তির বশবর্তী হয়ে তারা যে অন্যায় করে ফেলে তার জন্য তারাও কিন্তু “অনুশোচনা”য় ভোগে। অবলা বলে মুখের ভাষায় তা প্রকাশ করতে পারে না, কিন্তু হাবে ভাবে বুঝিয়ে দেয়, তাদেরও কষ্ট হয়েছে। সম্প্রতি এরকমই একটি মন ছুঁয়ে যাওয়া ঘটনা ঘটলো শিলিগুড়ির বাঘাযতীন পার্ক এলাকায়। এক ব্যবসায়ীর মৃত্যুর কারণ হয়েছিল একটি ষাঁড়। সেই ব্যবসায়ীরই স্মরণসভায় উপস্থিত হয়ে দুঃখের ভাগিদার হল সে।

স্থানীয় সূত্রে খবর, কিছুদিন আগে ষাঁড়ের গুঁতোয় গুরুতরভাবে জখম হন বাঘাযতীন ক্লাব এলাকার ওষুধের ব্যবসায়ী নৃপেন ভাওয়াল। এরপর তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করানো হয়। তবে তিনি এতটাই মারাত্মকভাবে জখম হয়েছিলেন যে শেষমেষ হাসপাতালেই মৃত্যু হয় তার। ওষুধের ব্যবসায়ী নৃপেন ভাওয়াল এলাকার অন্যান্য বাসিন্দাদের কাছে অতি পরিচিত ব্যক্তি ছিলেন।

তার ওষুধের দোকানটিও বেশ পুরনো। তাই স্থানীয় বাসিন্দাদের তরফ থেকে গত শনিবার নৃপেন ভাওয়ালের স্মৃতির উদ্দেশ্যে একটি স্মরণসভার আয়োজন করা হয়। যেখানে এলাকার বহু ব্যক্তি উপস্থিত ছিলেন। মৃত ব্যক্তির ছবি সামনে রেখে সকলেই তাকে স্মরণ করছিলেন। এমন সময় স্মরণ সভায় হাজির হয় সেই খুনি ষাঁড়। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানাচ্ছেন, ষাঁড়টি দীর্ঘক্ষন একদৃষ্টে নৃপেন বাবুর ছবির দিকে তাকিয়ে ছিল।

শুধু তাকিয়ে ছিল তাই নয়, স্মরণ সভায় উপস্থিত বাকিরা স্বচক্ষে দেখেছেন, ওই ষাঁড়ের চোখ দুটি রীতিমতো জল পূর্ণ হয়ে টলটল করছিল। এমন ঘটনা স্বচক্ষে না দেখলে তারা বিশ্বাসই করতেন না। স্মরণ সভায় উপস্থিত প্রত্যেকেরই মনে হয়েছে, সে হয়তো নিজের ভুল বুঝতে পেরেছে। তাই স্মরণ সভায় উপস্থিত হয়ে নৃপেন বাবুর ছবি দেখে সে তার কৃতকর্মের জন্য অনুশোচনায় ভুগছে! ঘটনা দেখে অবাক এলাকার বাসিন্দারা।