সব খবর সরাসরি পড়তে আমাদের WhatsApp  Telegram  Facebook Group যুক্ত হতে ক্লিক করুন

ভূগোলে MA ক’রা বৃষ্টি ট্রেনে হকারী করছেন! এই মেয়ের কা’হি’নী শু’ন’লে চোখে জল আ’স’বে

ভূগোলে মাস্টার ডিগ্রী করা মেয়ে বৃষ্টি, এখন সে ট্রেনের হকার। তাঁর জীবনযুদ্ধের কথা শুনলে চোখে জল আসবেই। বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুর ব্লকের একটি সবুজে ঘেরা গ্রাম সাবরাকোণ, সেখানকার বাসিন্দা বৃষ্টি। এই গ্রামেই হয়েছে বৃষ্টির বিয়ে।

তাহলে একটি মাস্টার ডিগ্রী করা মেয়ের সংসার রয়েছে তাঁর সাথে মেয়ের পড়াশোনা সব কিছু সামলেই সে ট্রেনে হকারি করে। অন্য পাচটা মেয়ের মতো জীবন নয় তাঁর। এই যুদ্ধ কিন্তু তাঁর বিয়ের আগের থেকেই।

সংসারের অভাব অনটন, এই সবের মধ্যেও কিন্তু পড়াশোনা চালিয়ে যায় সে। এতে তাঁর মনের ইচ্ছাশক্তি প্রকাশ পায়। মোটকথা নিজের পায়ে দাড়ানোর ইচ্ছা ছিল ছোট থেকেই।

আরো পড়ুন: বিরাট খবর, গুজরাটে বা’না’নো হচ্ছে বিশ্বমানের আয়ুর্বেদিক ওষুধ কে’ন্দ্র, WHO-র সা’থে চু’ক্তি সই কেন্দ্রের

এর পরেই সে মেয়েদের পোশাক বিক্রি করা শুরু করে, কিন্তু তাঁর পরেই তাঁর বিয়ে হয়ে যায়। সে এসে পরে শ্বশুড় বাড়ি। হয়ত তাঁর ভাবনা ছিল কিছুটা হলেও তো জীবন বদলাবে, কিন্তু নতুন ৫ টা গৃহবধূদের মতো তারও শুরু নতুন আরেকটি জীবন।

সব কিছুই ঠিক চলছিল কিন্তু হঠাত করেই তাঁর স্বামীর চাকরি চলে যায়। কারণ এই অতিমারী। সংসার একটু উন্নতির দিকে যাচ্ছিল কিন্তু আবার সংসারে নেমে আসে অন্ধকার। কিন্তু হাল ছাড়ে না বৃষ্টি।

আর তারপরেই সে আবার তাঁর পুরোনো কাজকেই বেছে নেয়। আবার শুরু করে জীবন যুদ্ধ। তবে এর সাথে আগের অনেক তফাৎ রয়েছে। বিয়ের আগে বাড়িতে বসে সেটা সে করত।

কিন্তু এখন সে সংসার সামলে, মেয়ের পড়াশোনা ঠিক রেখে সমস্ত কাজ সামলে ব্যাগ হাতে বেড়িয়ে পরে পিয়ারডোবা রেল ষ্টেশনের উদ্দেশ্যে।সেখানে ট্রেনে উঠে মেয়েদের পোশাক বিক্রি করে সে। এভাবেই চলে তাঁর দৈন্দিনের জীবন যুদ্ধ। তাঁর এই সংগ্রাম থেকে একটা শিক্ষাই পাওয়া যায়, হাল ছেড়ো না বন্ধু।।