ব্রেকিং: অবশেষে বাংলায় খুলছে স্কুল ও কলেজ, চূড়ান্ত ঘোষণা হলো আজই, জেনে নিন

দীর্ঘ প্রায় আট মাসের অপেক্ষার অবসান। আগামী ডিসেম্বর মাস থেকে কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ে খোলার সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য সরকার। স্কুল খোলার ব্যাপারে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়নি বলে জানা গেছে। রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছেন, স্কুল খোলার ব্যাপারে কালীপুজোর পরে আলোচনার মাধ্যমে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে। আপাতত আগামী ডিসেম্বর মাসে কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের পঠন-পাঠন শুরু করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে রাজ্য।

সোমবার, রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় রাজ্য সরকারের তরফ থেকে একটি ঘোষণা করে জানালেন, কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ে পঠন-পাঠন শুরু করার বিষয়ে সীলমোহর দিয়েছে রাজ্য সরকার। স্কুল খোলার ব্যাপারে কালী পূজার পরে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে। তিনি আরো জানিয়েছেন, স্কুল-কলেজ খোলার পাশাপাশি যাতে সঠিকভাবে ক্লাস শুরু করা যায় সেদিকেও দৃষ্টি দিতে হবে।

উল্লেখ্য, সদ্য অসম এবং তামিলনাড়ু সরকার স্কুল খোলার ব্যাপারে অনুমতি প্রদান করেছে। তামিলনাড়ুতে আগামী ১৬ই নভেম্বর এবং অসমে সোমবার অর্থাৎ ২রা নভেম্বর থেকেই স্কুল খোলার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। করোনা সংক্রমণ এড়াতে নির্দিষ্ট বিধিনিষেধ মেনেই এই দুই রাজ্যে পঠন-পাঠন শুরু করা হবে বলে জানানো হয়েছে। তবে স্কুলের ব্যাপারে এখনই তাড়াহুড়ো করতে চাইছে না পশ্চিমবঙ্গ।

উল্লেখ্য, করোনা মহামারীর আবহে সংক্রমণ এড়াতে দীর্ঘ আট মাস ধরে স্কুল-কলেজের পঠন-পাঠন বন্ধ রয়েছে। আনলক পর্বে ধীরে ধীরে ছন্দে ফিরছে দেশ। তবে,পরিবারের স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য এখনো দেশের বেশিরভাগ রাজ্যই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলিকে বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। যার ফলে চরম ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছেন পড়ুয়ারা। অসম, তামিলনাড়ুর পর এবার পশ্চিমবঙ্গও শিক্ষাক্ষেত্রে ধীরে ধীরে ছন্দে ফেরার চেষ্টা করছে।