চোখ-নাক ছাড়াই জ’ন্মে’ছে! এখনো জী’বি’ত সেই শিশু

যে শিশুর জন্মের সময় বাঁচার আশাই ছিল না, তারই সম্প্রতি নবম বর্ষের জন্মদিন উদযাপন করা হল। এইজন্যই হয়তো বলে, রাখে হরি তো মারে কে! কি ভাবছেন গল্প বলছি! না না। সত্যি ঘটনা। ঘটনাটি ব্রাজিলের ওয়ারা দি সাও ফ্রান্সিসকোর। জানা গিয়েছে, ওখানকার এক শিশুর যখন জন্ম হয়েছিল তখন তার মুখ ঠিকভাবে তৈরী হয়নি। শিশুটির নাম ভিটোরিয়া মার্চিওলি।

শিশুটির বাবা মা রোনাল্ডো ও জোসিলিন। জন্মের সময় শিশুটির চোখ মুখ ও নাক পরিপূর্ণ আকার ধারণ করেনি। তাই চিকিৎসকদের আশঙ্কা ছিল, জন্মের পর হয়তো কয়েক ঘন্টাই বেঁচে থাকবে সে। কার্যত জন্মের পরেই পরিবারকে তার শেষকৃত্যের আয়োজন করার পরামর্শ দেন চিকিৎসকেরা।

বাবা মায়ের সঙ্গে শিশুটি

ট্রেচার কলিন্স সিনড্রোম নিয়ে জন্ম হয় শিশুটির। যার কারণে তার মুখের ৪০টি হাড় বিকশিত হয়নি। ২ দিন পর শিশুটিকে অন্যত্র স্থানান্তরিত করা হয়। সেখানে ১ সপ্তাহ রাখা হয়েছিল। সম্পূর্ণ মুখ নির্মাণ করতে এখনও পর্যন্ত মোট ৮ টি অস্ত্রোপচার হয়েছে তার। সম্প্রতি টেক্সাসে তার আরও একটি অস্ত্রোপচার হয়েছে।

তার বাবা-মার অক্লান্ত পরিশ্রমই তাকে আজ এক স্বাভাবিক জীবন দিয়েছে। হয়তো সেই কারণেই যে শিশুর বাঁচার আশা জন্ম থেকেই ছিল না সে এখনও জীবিত বলে মনে করছেন চিকিৎসকেরা।