BJP-র এগিয়ে থাকা বু’থে প’রি’ষে’বা দেওয়া হ’বে না! দলীয় কর্মীদের নি’র্দে’শ প্রাক্তণ তৃণমূল বিধায়কের

বিজেপি এবং তৃণমূলকে কেন্দ্র করে ফের উত্তাল রাজ্য রাজনীতি। ঘাটালেন প্রাক্তন তৃণমূল বিধায়ক শঙ্কর দলুইকে কেন্দ্র করেই কার্যত এই বিতর্ক শুরু হয়েছে। সম্প্রতি তিনি দলীয় কর্মীদের নির্দেশ দিয়েছেন, ঘাটালের যে সকল বুথে বিজেপির রয়েছে সেখানে কোনো পরিষেবা দেওয়া হবে না! এ সংক্রান্ত একটি অডিও ক্লিপ সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। যে কারণে তাকে কেন্দ্র করে জোর সমালোচনা শুরু হয়েছে বিভিন্ন মহলে।

স্থানীয় পঞ্চায়েত প্রধানকে ফোন মারফত এই নির্দেশ দিয়েছিলেন শঙ্কর দলুই। প্রাক্তন বিধায়কের নিদান মানতে না পেরে তৃণমূল পরিচালিত গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান শেষমেষ BDO-র কাছে নিজের পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন। পঞ্চায়েত প্রধান পুতুল পাত্র সম্প্রতি এই অভিযোগ জানিয়েছেন যে, প্রাক্তন ওই তৃণমূল বিধায়ক তাকে রীতিমত হুমকি দিয়ে জানিয়েছেন বিজেপি বুথগুলিতে এগিয়ে আছে সেখানে কোনো উন্নয়নমূলক কাজ নয়।

পঞ্চায়েতের তরফ থেকে ওই বুথ গুলিতে কোনো রকম পরিষেবা কিংবা সাহায্য প্রদান করা হবে না বলেই সাফ জানিয়ে দিয়েছেন শঙ্কর দলুই। আয়ের সংশাপত্র, কন্যাশ্রী-রূপশ্রীর মতো সার্টিফিকেট দেওয়া হবে না বলে জানিয়ে দিয়েছেন তিনি। তবে পঞ্চায়েত প্রধান প্রাক্তন বিধায়কের এমন নির্দেশ মানতে নারাজ। তাই তিনি পদ থেকে সরাসরি ইস্তফা দিয়েছেন।

ঘটনাকে কেন্দ্র করে আরো একবার উত্তাল হয়ে উঠল রাজ্যের রাজনীতি। এমনিতেই তৃণমূল তৃতীয়বারের মতো ক্ষমতায় আসার পর থেকেই বিজেপির উপর বারংবার হামলার ঘটনা ঘটছে। তার উপর আবার তৃণমূলের প্রাক্তন বিধায়কের এমন নির্দেশের কথা প্রকাশ্যে আসতেই বিতর্ক বাড়ল বৈ কমলো না। প্রশ্ন উঠছে বিরোধী দলের প্রতি শাসকদলের মনোভাব নিয়ে।