বলিউডে মাদক যোগ নিয়ে বোমা ফাটালেন রিয়া, চাঞ্চল্যকর দাবি অভিনেত্রীর

রিয়া চক্রবর্তী তাদের জামিনের আবেদনে স্পষ্ট জানিয়েছে বলিউডের ৭০% তারকাই মাদক নেয়, নয়ত মাদক আনায়। রিয়ার এই কথাতে দারুণ চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে বলিউডে। নারকোটিক্স ব্যুরোর তরফ থেকে জানানো হয়, রিয়া চক্রবর্তীকে যখন জেরা করা হয় তখন তিনি বলিউডের একাধিক তারকার নাম নিয়েছে যাদের সাথে কিনা মাদক যোগ রয়েছে।

এখানেই শেষ নয়, রিয়ার আরও বক্তব্য ছিল, আমাম্র বাড়িত ঈক ফোটাও মাদক দ্রব্য পায় নি গোয়ান্দারা। তাও আমাদের গ্রেফতার করা হয়েছে, আমাদের ইচ্ছে করেই এমন হেনস্থা করা হচ্ছে। আর সেই কারণেই বোঝা যাচ্ছে টি উদ্দেশ্য প্রণোদিত।তবে সেই উদ্দেশ্য এখনও পরিষ্কার হয় নি। কিন্তু নারকোটিক্স বাহিনীর তরফ থেকে জানানো হচ্ছে, আসলে তিনি মাদক চক্রের সাথে যুক্ত। এখন রিয়ার এই সব কথার পরিপ্রেক্ষিতে বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, আসলে নিজেকেই বাচাতেই এই মন্তব্য যে করেছেন রিয়া সেটা তারা মনে করছে। বলিউডের মাদক চক্র, এটা নতুন কিছুই না।

কারণ এর আগেও দেখা গেছে অনেক ধরনের চক্র। কেউ বা কারা বলিউডের থেকে ধরা পরলেই এই মাদক চক্রের কথা উঠে আসে, তাই এবারও নতুন কিছু না। এখন প্রশ্ন হল, বলিউডের কেউ অভিযুক্ত হলে তাদের মামলা যে সুদূর প্রসারী হয় না, সেটা স্পষ্টই বোঝা যায়। কিন্তু প্রশ্ন হল এখন কি রিয়া চক্রবর্তীর কথা মতো বলিউডের তারকাদের দরজায় দরজায় গিয়ে কড়া নারবে নারকোটিক্স ব্যুরো? রিয়ার জামিনের সিদ্ধান্ত আজ নেওয়া হবে।

এই নিয়ে আইনজীবীরা জানিয়েছেন, সুশান্তের মৃত্যুর কারণেই তিনি আজ জেলে, এই হাইপ্রোফাইল মামলায় তার জামিন পাওয়া হয়ত অতো সহজ হবে না। এখন যদি রিয়া জামিন পান, তাহলে হয়ত এন সিবির নিজেরই দাবির জন্য। কারণ তারা বলেছে, রিয়া নিজেই স্বীকার করেছে তিনি মাদক কান্ডে জড়িত ও তিনি মাদকের জন্য টাকাও দিতেন। কিন্তু এই দাবি খারিজ করে দেওয়া হয় আদালতের পক্ষ থেকে। কারণ বিচার ব্যবস্থার বহু ক্ষেত্রে এই জেরার সময় বয়ান তেমন ভাবে গুরুত্ব পায় না। তাই এখন নারকোটিক্সের কি করণীয় সেটাই দেখার।