নন্দীগ্রামে বিজেপি প্রা’র্থী শুভেন্দু অধিকারী এগিয়ে এই মু’হূ’র্তে

দীর্ঘ প্রতীক্ষার অবসান ঘটিয়ে শেষমেষ রাজ্যজুড়ে একুশের বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশিত হতে চলেছে। মাঝে আর মাত্র কয়েকটা ঘণ্টার অপেক্ষা। তারপরই একুশের যুদ্ধের অবসান হবে। বিজয়ী দল নির্বাচিত হবে। তাই রাজ্য রাজনীতির পারদ এখন তুঙ্গে। এই লড়াইয়ে বিজেপি এবং তৃণমূলের মধ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই বাঁধতে চলেছে। এমনই সম্ভাবনা দেখছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

ইতিমধ্যেই প্রথমে ১০৩টি কেন্দ্রের পরিসংখ্যান পেশ করা হয়েছে। যাতে দেখা যাচ্ছে ৫২টিতে এগিয়ে তৃণমূল এবং ৫০টিতে এগিয়ে রয়েছে বিজেপি। অর্থাৎ প্রথম থেকেই বিজেপি এবং তৃণমূল এর মধ্যে লড়াই চলছে সমান সমানে। পূর্ব বর্ধমানের মেমারি কেন্দ্রে এগিয়ে রয়েছেন বিজেপি প্রার্থী। বীরভূমের দুবরাজপুর এবং সিউড়িতেও এগিয়ে বিজেপি।

খড়গপুর সদর, নলহাটি, আসানসোল উত্তর সহ ৫২ কেন্দ্রে কিন্তু তৃণমূল এগিয়ে রয়েছে। এদিকে যাদবপুর কেন্দ্রে, রাজারহাট-গোপালপুর কেন্দ্র এবং রাসবিহারিতেও এগিয়ে বিজেপি। তবে চলতি দফার বিধানসভা নির্বাচনে মোস্ট হাই ভোল্টেজ কেন্দ্র নন্দীগ্রামে কিন্তু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে পেছনে ফেলে দিয়ে এগিয়ে চলেছেন শুভেন্দু অধিকারী। এ পর্যন্ত শুভেন্দুর পাল্লা ভারী।

এদিকে অন্যান্য বারের মতো এবারেও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রয়েছেন তার কালীঘাটের বাড়িতে। সেখান থেকেই নির্বাচনী ফলাফলের উপর নজর রাখছেন তিনি। এবারেও তিনি কালীঘাটের বাড়িতেই রয়েছেন। ভোটের গণনা যতই এগোচ্ছে, রাজ্য রাজনীতি ততই উত্তপ্ত হচ্ছে।