Binod, কে-কেনো-কোথা থেকে, উত্তর খুঁজতে ব্যস্ত অনেকেই, উদ্ধার করা গেলো আসল রহস্য

এখন আর ‘বিনোদ’ ছাড়া কিছুই দেখা যায়না। কিন্তু কে এই বিনোদ? আসল বিষয়টি হল, ইউটিউবের জনপ্রিয় চ্যানেল ‘স্লেভি পয়েন্ট’ এ একটি এপিসোডে ভিডিওর নীচে আসা কমেন্ট নিয়ে আলোচনা করেছিলেন দুই সঞ্চালক। সেই ভিডিওটি ভাইরাল হয়। সেখানে বিনোদ থারু নামের এক ব্যক্তি কমেন্টে লেখেন ‘বিনোদ’। তিনি কমেন্ট এ শুধু তার নাম লেখেন। সেই কমেন্ট এ তিনি ৭ টি লাইকও পান। তখন থেকেই শুরু হয় বিনোদের জনপ্রিয়তা।

সঞ্চালকরা ব্যাখ্যা দিয়েছিল, প্রত্যেকের মধ্যেই এই বিনোদ থাকে এবং তাঁদের এই মন্তব্য ভাইরাল হয়ে যায়। শুরু হয় মিম তৈরি। মিমগুলিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হতে থাকে।

হটস্টার অ্যান্ড ডিজনি, সুইগি, অ্যামাজন প্রাইম ভিডিও ইন, নেটফ্লিক্স ইন্ডিয়া, এয়ারটেল সহ বহু জনপ্রিয় এবং বহুজাতিক সংস্থা মেতেছে ‘বিনোদ’ মিমে।

বিষয়টি এতটাই ভাইরাল হয় যে Paytm তার নামও বদলে ‘বিনোদ’ করে ফেলে। নাগপুর সিটি পুলিশ এবং মুম্বই পুলিশও মেতেছে বিনোদ মিমে।করোনা নিয়ে সতর্কবার্তা দিয়ে নাগপুর সিটি পুলিশ টুইট করে লিখেছে, ‘বিনোদ আমরা জানি আপনি ভাইরাল হয়েছেন, কিন্তু আপনার সুরক্ষা জরুরি। করোনা আপনার থেকেও বেশি বিখ‍্যাত।

তাই বাড়িতে থাকুন, সুস্থ থাকুন’। মুম্বই পুলিশ টুইট করে লিখেছে, ‘বিনোদ, আশা করি আপনার নামটাই আপনার অনলাইন পাসওয়ার্ড নয়, আপনি এখন ভাইরাল।

তাই পরিবর্তন করে নিন’। জয়পুর পুলিশ টুইট করে লিখেছে, ‘What is #BINOD? B – Buckle up the seat belt before driving, I – Inform Police about any suspicious activity, N – Never drink and drive, O – Obey COVID guidelines, D – Dial 100 for any help or assistance’।

সব খবর সরাসরি পড়তে আমাদের WhatsApp  Telegram  Facebook Group যুক্ত হতে ক্লিক করুন