বিরোধিতার মধ্যেই বড়ো ঘোষণা, রবি ফসলের ন্যূনতম সহায়ক মূল্য ৫০-৩০০ টাকা বাড়িয়ে দিলো কেন্দ্র

কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে প্রস্তাবিত নতুন কৃষি বিল নিয়ে দেশজুড়ে বিক্ষোভের হাওয়া বইছে। বিরোধী রাজনৈতিক শিবিরের পাশাপাশি নতুন কৃষি বিল সম্পর্কে প্রতিবাদ জানাচ্ছেন দেশের বিভিন্ন প্রান্তের কৃষকেরা। এরই মাঝে কৃষি সম্পর্কিত এক বড় সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা করল কেন্দ্রীয় সরকার। সোমবার সংসদের বাদল অধিবেশনে অংশগ্রহণ করে লোক সভায় কেন্দ্রীয় কৃষি মন্ত্রী নরেন্দ্র সিং তোমর জানালেন, কৃষিপণ্যের ন্যূনতম সহায়ক মূল্য বাড়াবার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্র।

এদিন লোকসভার অধিবেশনে কেন্দ্রীয় কৃষিমন্ত্রী জানালেন, রবি ফসলের ন্যূনতম সহায়ক মূল্য কুইন্টাল প্রতি ৫০ টাকা থেকে ৩০০ টাকা পর্যন্ত বাড়ানো হবে। কুইন্টাল প্রতি গমের ন্যূনতম সহায়ক মূল্য ৫০ টাকা বাড়িয়েছে কেন্দ্র। পাশাপাশি ছোলা এবং মসুরের ডাল জাতীয় পণ্যের ক্ষেত্রে কুইন্টাল প্রতি যথাক্রমে ২৫০ টাকা এবং ৩০০ টাকা বাড়ানো হয়েছে। পাশাপাশি সর্ষের সহায়ক মূল্য কুইন্টাল প্রতি ২২৫ টাকা বেড়েছে।

ফলে এবার থেকে প্রতি কুইন্টাল মুসুরের ডালের ন্যূনতম সহায়ক মূল্য বেড়ে ৫ হাজার ১০০ টাকা নির্ধারিত হয়েছে। পাশাপাশি, নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী প্রতি কুইন্টাল সর্ষের ন্যূনতম সহায়ক মূল্য ৪ হাজার ৬৫০ টাকা ধার্য করা হয়েছে। এবার থেকে প্রতি কুইন্টাল কুসুমের সহায়ক মূল্য ৫ হাজার ৩২৭ টাকা এবং কুইন্টাল প্রতি গমের সহায়ক মূল্য ১৯৭৫ টাকা ধার্য করা হয়েছে। বর্তমানে কুইন্টাল প্রতি বার্লির সহায়ক মূল্য ১৬০০ টাকা।

তবে কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করছেন পঞ্জাব, হরিয়ানা সহ বিভিন্ন রাজ্যে কৃষকরা। প্রতিবাদ কর্মসূচি হিসেবে আগামী ২৫ সেপ্টেম্বর সম্পূর্ণ শাট-ডাউনেরও ডাকও দিয়েছেন তারা। কৃষকদের অভিযোগ, নতুন বিলটি আইনে পরিণত হলে দেশের কৃষিব্যবস্থা সম্পূর্ণরূপে কর্পোরেট সংস্থার অধীনে চলে যাবে। অল ইন্ডিয়া কিষান সংঘর্ষ কো-অর্ডিনেশন কমিটির জাতীয় আহ্বায়ক ভিএম সিংয়ের দাবি, সরকারের বক্তব্য এই ব্যবস্থার কৃষকরা উপকৃত হবেন, তবে এই ব্যবস্থা কার্যকর হলে নূন্যতম সহায়ক মূল্য টুকুও মিলবে না। তাই আগামী দিনে দেশের প্রতিটি প্রান্তে কৃষকদের আন্দোলনে অংশগ্রহণ করার ডাক দিয়েছে কমিটি।