অকল্পনীয় বিপদের মুখে বাংলাদেশ !, মাত্র কয়েকদিনে আক্রান্তের সংখ্যা 10 হাজার ছাড়ালো

গোটা বিশ্ব জুড়ে করোনা আতঙ্ক। লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে সংক্রমন, বাড়ছে মৃত্যু। করোনা মোকাবিলার জনৈক গোটা বিশ্বের প্রায় প্রতিটি দেশেই এই মুহূর্তে লকডাউন চলছে। বাংলাদেশে এখনও পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ১০ হাজার ছাড়িয়ে গিয়েছে, মৃত্যু হয়েছে ১৮২ জনের। সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১ হাজারের উপরে। করোনা মোকাবিলার জন্য ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সাধারণ ছুটি ঘোষণা করে সরকার, পরে এই ছুটি ১১ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়ানো হয়। তারপর ছুটির মেয়াদ ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়ানো হয়। এরপর চতুর্থবারের মতো ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত ছুটি ঘোষণা করে সরকার।

তারপর ৫ মে পর্যন্ত ছুটি বাড়ানো হয়। সোমবার মন্ত্রীপরিষদের তরফে বলা হয়, ৭ মে থেকে দোকানপাট এবং শপিং মল খোলা যাবে। বড় শপিং মলের প্রবেশ পথে হাত ধোয়ার জন্য সাবান জল এবং লাগাতার স্যানেটাইজার থাকতে হবে। বিকাল ৫ টা পর্যন্ত মার্কেট, দোকানপাট থোলা থাকবে। বাংলাদেশ সরকার ঈদের কেনাকাটার জন্য এই ব্যবস্থা নিয়েছে। তবে কেনাকাটার সময় অবশ্যই সামাজিক দূরত্ব মেনে চলতে হবে। জনপ্রশাসন মন্ত্রকের বলা হয়, এবারে ঈদা যাত্রা বাতিল। যে যেখানে রয়েছেন, সেখানেই ঈদ পালন করতে হবে। ঈদে দূরপাল্লার বাসও চলবেনা।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, অর্থনীতি সচল রাখার জন্য এবং ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের কথা চিন্তা করেই ব্যবসা-বাণিজ্য খোলার ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। কেনাকাটার সময় সামাজিক দূরত্ব মেনে চলতে হবে। সাধারণ ছুটির সময় অফিস-আদালত, গণপরিবহন বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। কাঁচাবাজার, খাবার, ওষুধের দোকান, হাসপাতাল, জরুরি সেবা বন্ধের বাইরে থাকছে। সশস্ত্র বাহিনী মোতায়েন রয়েছে সাধারণ মানুষদের ঘরে রাখার জন্য।

সব খবর সরাসরি পড়তে আমাদের WhatsApp  Telegram  Facebook Group যুক্ত হতে ক্লিক করুন

/p>