লাদাখ সীমান্তে নিয়ন্ত্রণ রেখা পেরিয়ে অনুপ্রবেশের চেষ্টা, সেনার গুলিতে পিছু হটলো লাল ফৌজ

লাদাখের প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় উত্তেজনা ক্রমশ বাড়ছে। মঙ্গলবার সকালে ভারতীয় সেনাবাহিনীর তরফ থেকে জানা গেল, প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় ভারত এবং চীনের সেনাবাহিনীর মধ্যে গোলাগুলি চলেছে। বিগত বেশ কয়েক মাস ধরেই ভারত-চীন সীমান্তে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় শান্তি বিঘ্নিত হয়েছে। উভয় প্রতিবেশী রাষ্ট্রের সেনারা বেশ কয়েক দফায় সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েছে। আবারও সীমান্ত সংঘর্ষের ঘটনা ঘটলো।

ভারতীয় সেনাবাহিনী সূত্রে খবর, পূর্ব লাদাখের প্যাংগং লেকের একটি স্ট্র্যাটেজিক হাইটকে চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মির দখলমুক্ত করতে সক্ষম হয়েছে ভারতীয় সেনা। এর ফলে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা থেকে বেশ কিছুটা পিছু হটতে বাধ্য হয়েছে চীন। তবে ভারতীয় সেনাবাহিনীর তৎপরতায় পিছু হটলেও, সীমান্তে ক্রমাগত উত্তেজনা বৃদ্ধি করার চেষ্টা করে চলেছে পিপলস লিবারেশন আর্মির সদস্যরা।

উল্লেখ্য, বিগত বেশ কয়েক মাস ধরে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা পেরিয়ে ভারতীয় ভূখণ্ড দখল করার চেষ্টা চালাচ্ছে চীনা ড্রাগনের দল। সীমান্ত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য দফায় দফায় বৈঠকের আয়োজন করা হলেও, প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখায় নিজেদের অবস্থান থেকে সরতে নারাজ চীন। এমতাবস্থায়, গত জুন মাসে চিনা সেনাবাহিনীর আক্রমনে ভারতের কুড়ি জন সেনা জওয়ান শহীদ হন। এর পরেই পাল্টা প্রত্যুত্তোর দেয় ভারত।

এরই মাঝে গত শুক্রবার, লাদাখের সীমান্ত পরিস্থিতি বিবেচনা করে রাশিয়া সফরকালীন চীন এবং ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের মুখপাত্ররা একে অপরের সাথে বৈঠকে বসেন। দীর্ঘ বৈঠকের পরেও কোনো সমাধান সূত্রে পৌঁছাতে না পেরে চীনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী ওয়েই ফেংহে জানিয়ে দেন, সীমান্তে নিজ অবস্থান থেকে সরবে না চীন। পাশাপাশি, সীমান্তে অশান্তির পরিস্থিতি সৃষ্টির জন্য সরাসরি ভারতকেই দায়ী করা হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে ভারতের তরফ থেকেও জানিয়ে দেওয়া হয়, চীনা সেনা সীমান্ত থেকে পিছু না হঠলে, ভারতীয় সেনাবাহিনীও নিজ অবস্থান থেকে সরবে না।