বিজেপি সাংসদের উপর হা’ম’লা, গাড়ি লক্ষ্য করে ই’ট’বৃ’ষ্টি, অল্পের জন্য প্রা’ণে র’ক্ষা

আজ ঈদের অনুষ্ঠানে যোগদান করতে যাওয়ার পথে দুষ্কৃতীদের হামলার মুখে পড়লেন বিজেপি সাংসদ সুভাষ সরকার। তার অভিযোগ পথে তার গাড়ির উপর ইটবৃষ্টি, পাথর ছোঁড়া হয়। সুভাষ সরকার অল্পের জন্য আঘাত থেকে রক্ষা পেয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে অভিযোগের আঙুল উঠেছে তৃণমূলের বিরুদ্ধে। বিজেপি কর্মীরা ঘটনার পর বাঁকুড়া থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।

বিশিষ্ট সূত্রের খবর, শুক্রবার দুপুরে ইদের এক অনুষ্ঠানে যোগ দিতে যাচ্ছিলেন বিজেপি সাংসদ সুভাষ সরকার। তার সঙ্গে কয়েক জন দলীয় কর্মীও ছিলেন। তার গাড়িতে উপস্থিত ছিলেন তার নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা দুই CISF জওয়ান এবং এক কর্মী। বাঁকুড়া সদর থানা এলাকার পাতালখুড়ি গ্রামের কাছাকাছি পৌঁছতেই তার গাড়ি লক্ষ্য করে পাথর এবং ইট ছোঁড়া হয়।

বিজেপির অভিযোগ, এই আক্রমণের ঘটনায় গুরুতর জখম হতে পারতেন সুভাষ সরকার। তবে অল্পের জন্য তিনি রক্ষা পান। ঘটনাস্থলেই গাড়ি দাঁড় করিয়ে তিনি থানায় ফোন করেন। এদিকে তৃণমূলের অভিযোগ, তৃণমূল দলের সঙ্গে এই ঘটনার কোনো যোগাযোগ নেই। বিজেপির অন্তর্গত গোষ্ঠী কোন্দলের ফলাফল এই আক্রমণ।

ঘটনা প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে সুভাষ সরকার বলেছেন, এই ঘটনার জন্য গন্তব্যস্থলে না পৌঁছে ফিরে আসতে হয়েছে। তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরাই এই হামলার পেছনে দায়ী। এই মর্মে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন তিনি। উল্টোদিকে বাঁকুড়া জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি শ্যামল সাঁতরা দাবি করছেন, বিধানসভা নির্বাচনের পর বিজেপি দলের অভ্যন্তরে গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব আরো বেড়ে গিয়েছে। দলীয় কর্মী সমর্থকরাই এমন কাণ্ড বাধিয়েছেন।