রাত না দুপুর বে’লা! কোন স’ম’য়ে ভাত খাওয়া বে’শি উ’প’কা’রী আপনার জন্য? জানুন বিশেষজ্ঞদের মতামত

রাতের বেলা অল্প পরিমাণে মসুর ডাল ও ভাত খান এতে আপনার হার্ট ও ব্লাড প্রেসার ঠিক থাকবে। ভাত আমাদের তন্ত্রকে শক্তিশালী করে তোলে ও কোষ্ঠকাঠিন্য থেকে দূরে রাখে আমাদের শরীরকে।

ভাত খুব সহজেই হজম হয়। এতে ঘুম অনেক ভালো হয়। ভাতে অনেক কম ফ্যাটযুক্ত উপাদান রয়েছে এবং তা কোলেস্টেরলমুক্ত। এতে গমের চেয়ে কম ক্যালরি রয়েছে।

রাতে থেকে দেওয়া বাড়তি ভাত ফেলে না দিয়ে জল ঢেলে রাখুন পরেরদিন সকালে ব্রেকফাস্ট এ পান্তাভাত কাঁচা পেঁয়াজ দিয়ে খেয়ে নিন।পানতাভাত আপনার শরীরের তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে। এবার যদি আপনার জ্বর সর্দির ধাঁচ থেকে থাকে তাহলে তা এড়িয়ে যাওয়াই ভালো।

আপনি যদি রোগা হয় তাহলে রাতের বেলা ভাত খান। আর যদি আপনার ওজন বেশি হয় তাহলে সন্ধ্যের দিকে ভাত খেয়ে ফেলুন। কারণ বিপাক কার্য বিকেলের দিকে ভালো হয়।

ভাতে প্রচুর পরিমাণে শর্করা থাকে যা ওজন বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে। তবে শর্করা আমাদের শরীরে শক্তির প্রধান উৎস। যারা ওজন কমাতে চান তারা অল্প পরিমাণে ভাত খাবেন।

হাতে প্রচুর পরিমাণে তন্তু থাকে যা কোষ্ঠকাঠিন্য থেকে মুক্তি পেতে সাহায্য করে। ভাত খেলে লিভারের বিষাক্ত পদার্থ গুলি দূর হয়ে যায়। ভাত খেলে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি পায়।