পুকুরে ডুব দিলেই হাতে উঠে আসছে টাকা-সোনার গহনা, ব্যাপক শোরগোল বর্ধমানে

পুকুরে ডুব দিলেই নাকি মিলছে টাকা এবং সোনার গয়না! শুক্রবারে, পূর্ব বর্ধমানের মেমারি ২ ব্লকের কুচুট পঞ্চায়েতে বড়মশাগোড়িয়া গ্রামের এক পুকুরকে কেন্দ্র করে এমনই খবর রটে। এরপরে সকাল থেকেই পুকুরের জলে নেমে তন্নতন্ন করে গুপ্তধনের সন্ধান চালান গ্রামবাসীরা। অবশেষে বিকেলে ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌঁছে পুকুরের জল থেকে বেশ কিছু টাকার বান্ডিল উদ্ধার করে। শুক্রবার সকালে ওই এলাকাতে খবর রটে যায় যে, পুকুরে নেমে ডুব দিলেই নাকি ২০০০ টাকা ৫০০ টাকার নোট তার সাথে বেশ কিছু কয়েন এবং সোনার গয়না পাওয়া যাচ্ছে। এই খবর রটে যেতেই উৎসাহী মানুষ ভিড় জমান পুকুরে। স্থানীয় সূত্রে খবর, সকাল থেকেই পুকুরের জলে নেমে গুপ্তধনের সন্ধানে পুকুর হাতড়াতে শুরু করেন গ্রামবাসীরা।

কুচুট পঞ্চায়েতের বড়মশাগড়িয়া গ্রামের এসডিপিও আমিনুল ইসলাম খান জানালেন, গত দুইদিন ধরে নাকি ওই পুকুরে টাকা পাওয়া যাচ্ছে। কয়েকদিন আগেই স্থানীয় বাসিন্দারা পুকুরে টাকা ভাসতে দেখেছেন। এরপরে পুকুরে নেমে পড়েন গ্রামবাসীরা। ঘন্টার পর ঘন্টা জলে কাটিয়ে গুপ্তধনের সন্ধানে হন্যে হয়ে খোঁজ চালিয়েছেন তারা।

এদিকে পুকুরের কথা জানাজানি হতেই, শুক্রবার বিকেলে ঘটনাস্থলে গিয়ে পৌঁছায় পুলিশ। গ্রামবাসীদের সেখান থেকে সরিয়ে দিয়ে পুলিশ নিজেই পুকুরে জাল ফেলে তল্লাশি চালায়। পুলিশকে অবাক করে দিয়ে পুকুর থেকে বেশ কয়েক বান্ডিল টাকার নোট উঠে এসেছে জালে। এত টাকা এই পুকুরের মধ্যে কোথা থেকে এলো, এ সম্পর্কে বেশ ধোঁয়াশায় রয়েছে পুলিশ। আপাতত, এই টাকার উৎসের খোঁজে তদন্তে নেমেছে মেমারি থানার পুলিশ।