প্রতীক্ষার অবসান, বুকিং শুরু ইলেকট্রিক স্কুটার বাজাজ চেতকের, জানুন খুঁটিনাটি

বুকিং শুরু ইলেকট্রিক স্কুটার বাজাজ চেতকের

বাজাজ চেতক এমন একটা নাম যার সাথে আমাদের শৈশব মিশে আছে। এটা এমন একটা স্কুটার যার যা কথা বললেই আমাদের সামনে সেই শৈশব ভেসে ওঠে। ১৯৮০-৯০ দশকের এই স্কুটার যা সবার মন জয় করেছিল। কিন্তু সেই স্কু্টার ফের কালের গর্ভে হাড়িয়ে যায়। কারণ যেভাবে আধুনিক বাইক স্কুটার বাজারে আসতে থাকে তার ভিড়ে তার খোজই কেউ পাওয়া যায় না।

তবে এবার সেই চেতক তার দীর্ঘ বনবাসের পরে ফের বাজারে ফিরে আসতে চলেছে। গতকাল লঞ্চ হয়েছে এই স্কুটি ভারতে। এবার তার ঠিক পরের দিন থেকে অগ্রিম বুকিং ও শুরু হয়ে গেছে। মাত্র ২০০০ টাকা দিয়ে এর বুকিং করা হচ্ছে। তো আএই চেতকের মজা যদি ফের নিতে চান তাহলে আর দেরি না করে এখনই বুকিং সেড়ে ফেলুন।

এই বাজাজ চেতক ভারতের প্রথম ইলেকট্রিক স্কুটি হতে চলেছে। আমরা এটা বুঝতে পেরেছি কিন্তু অনেক দেরি করে। তাই এই বৈদ্যুতিক গাড়ির দিক থেকে অনেকটাই পিছিয়ে গেছি আমরা। কিন্তু এবার তার শুরু বাজাজ চেতকের কাম্ব্যাক করার পালা নিয়ে। এই বাজাজ চেতকের দুটি ভেরিয়েন্ট আনা হয়েছে বাজারে। একটি বাজাজ চেতক আরবান ও আরেকটি বাজাজ চেতক প্রিমিয়াম। দুটির দামের মধ্যে পার্থক্য মাত্র ১৫ হাজার টাকার। একটা ১ লক্ষ টাকা ও আরেকটা ১লক্ষ ১৫ হাজার টাকা।

এর মধ্যে রাখা হয়েছে আইপি ৬৭ রেটেড লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারী। ইঞ্জিনের সার্ভিস অনেকটাই ভালো। সংস্থা জানিয়েছে এই ইঞ্জিন ৩ বছরের সার্ভিস দেবে। তাছাড়া ইঞ্জিন থেকে পাওয়া যাবে ১৬ নর্ম টর্ক। এর ব্যাটারী চার্জ হতে সময় নেবে ৫ ঘন্টা। তার মানে ১ ঘন্টায় ২০% করে চার্জ হবে ব্যাটারী। এর বডির ডিজাইনের নতুনত্ব আনা হয়েছে।

একেবারে মেটাল বডি। কিছুটা হলেও বোঝা যায় যে এটা আগের চেতকের উত্তরসূরী। কিছু মূল ডিজাইনে প্রায় পরিবর্তন করাই হয় নি, আর এটার মূল কারণ মানুষের ভালোলাগা জড়িয়ে আছে এই চেতকের সাথে তাই। তবে এই চেতক সবার প্রথমে পাওয়া যাবে পুনের দিকে। তার পরে ধীরে ধীরে দেশে ছড়িয়ে দেওয়া হবে।

সমস্তরকম এক্সক্লুসিভ খবর পেতে লাইক করুন