৩ সেকেন্ডেই ১০০ কিমি, এক চার্জেই যাবে ৪৮৩ কিমি, লঞ্চ হল দুর্দান্ত ইলেকট্রিক বাইক

৩ সেকেন্ডেই গতিবেগ ১০০ কিমি

মাত্র ৩ ঘন্টাতেই চার্জ হবে ফুল, এক চার্জেই যাবে ৪৮৩ কিমি, আর গতিবেগ ৩ সেকেন্ডেই ১০০ কিমি ছুই ছুই। সত্যি এমন বাইকও যে হতে পারে তা সাধারণ মানুষের ভাবনার বাইরে। এসত্যি যেনো বাইক নয় একেবারে ফাইটার জেট। এমনই এক ইলেকট্রিক বাইক লঞ্চ করলো কানাডার একটি বাইক সংস্থা যার নাম ডেমন, তারা সম্প্রতি একটি বাইক লঞ্চ করেছে যার নাম ডেমন হাইপার স্পোর্ট ইলেক্ট্রিক মোটরসাইকেল। তার ফার্স্ট লুক ইতিমধ্যে প্রকাশ পেয়ে গেছে।

তার স্পেসিফিকেশন যা আমাদের চিন্তা ভাবনার বাইরে। এটি ভবিষ্যতের প্রযুক্তির কথা মাথায় রেখে তৈরী করা। এই হাইপার স্পোর্ট বাইকে আছে ২০০ হর্স পাওয়ার যুক্ত ইঞ্জিন, যার মধ্যে টর্ক পাওয়ার ২০০ এন এম। এই বাইকের প্রযুক্তিতে অনেক ধরনের আলাদা আলাদা ফিচার যোগ করা আছে। এই বাইক যদি শুধু হাইওয়ে রেঞ্জে চলে তাহলে এক চার্জেই চলবে ৪৮৩ কিমি, কিন্তু এই বাইক যদি তার সর্বোচ্চ গতিতে চলে (ঘন্টায় ২০০ মাইল) তাহলে এই বাইক এক চার্জে চলবে ৩২২ কিমি।

এই সুপারবাইকের সাথে ব্যবহার করা হয়েছে ২০ কিলোওয়াটের কুলড ব্যাটারী প্যাক। যার থেকে সারা বাইকে শক্তি সঞ্চালিত হয়। এই বাইকের মধ্যে আরও যেটা সব থেকে আকর্ষণীয় জিনিস সেটা হল ০-১০০ কিমি স্পিড মাত্র ৩ সেকেন্ডের মধ্যেই এই বাইক দাবি করে। সাথে এই বাইকের ফুল চার্জে লাগে মাত্র ৩ ঘন্টা।যা অন্য সব বাইকের থেকে খুবই দ্রুত গতি সম্পন্ন। হাইপারস্পোর্টে ড্যামনের শিফট সিস্টেমটি চলার পথে চালনের সুবিধার জন্য ব্যবহার করা হয়েছে।

যা পাদদেশগুলি সরানোর মাধ্যমে করা হয়। এই বাইকের বডি চালকের সুবিধা, বা রাস্তার হিসেবে পরিবর্তন করা যায়, যা অনেকটাই আরামদায়ক হিসেবে কাজ করে। এই বাইকের সামনে ও পেছনে হাই রেজোলিউশোনের ক্যামেরা সংযোগ করা হয়েছে, যাতে সামনের ও পেছনের সব কিছু চালকের চোখে পরে। তাছাড়া এই বাইকের সাথে কোপাইলট মোটরসাইকেলের আশেপাশে একাধিক বস্তুর গতি, দিকনির্দেশ এবং গতিবেগ ট্র্যাক করতে জায়ান্ট ব্ল্যাকবেরি ক্যামেরা এবং সেন্সরগুলির ব্যবহার করা হয়েছে।

এখানে এই সেন্সরগুলোর কাজ হল আশেপাশের সব পরিস্থিতির সংকেত দেওয়া ও দুর্ঘটনা ও সংঘর্ষের বার্তা পাঠানো। এখানে যেসব সেন্সর ও ক্যামেরা লাগানো আছে, তার দ্বারা বাইকের ৩৬০ ডিগ্রী আওতায় যেসব বাধা আসবে, বা যেসব যান আসবে তার জানান দেওয়া। পরে অবশ্য কোম্পানি মারফত জানা গেছে, এই ডেমন হাইপারস্পোর্ট বাইকের ২৫ টি মডেল প্রথমে বিক্রি করা হবে, যার মধ্যে ব্রেম্ব ব্রেকস, অহলিন সাস্পেনশন ও সিঙ্গেল সাইডেড কার্বন সুইংগ্র্যাম ব্যবহার করা হয়েছে।

জানা গেছে এই বাইকের স্পেশাল এডিশনের দাম ভারতীয় মূদ্রায় হতে চলেছে ২৯ লক্ষ। আর স্ট্যান্ডার্ড ট্রিম ভেরিয়েন্টেসে হতে চলেছে ১৮ লক্ষ। বুকিং ইতিমধ্যে শুরু হয়ে গিয়েছে, আপনারা চাইলে বুকিং করে ফেলতে পারেন।

সমস্তরকম এক্সক্লুসিভ খবর পেতে লাইক করুন