সোলেমানির মৃত্যু নিয়ে একি বললেন ট্রাম্প, অবাক সকলে

গত শুক্রবার রাতে বাগদাদ বিমান বন্দরের কাছে রকেট হামলা চালায় আমেরিকা, আর তারফলেই কুদস বাহিনীর নেতা সুলেমানির মৃত্যু হয়। এরপরেই ক্ষোভে ফেটে পরে ইরান। তাদের তরফ থেকে সব ধরনের হামলার জন্য মুখিয়ে আছে ইরান। কিন্তু আমেরিকাও চুপ করে বসে নেই। এই ঘাত প্রত্যাঘাত চলছে তাদের মধ্যে।

এরই মধ্যে ট্রাপ তার ডেমোক্রেটদের কাছে বললেন, আমি সোলেমানির মৃত্যুর নির্দেশ দিয়ে ভালো করেছি হিসেবে আমার নোবাল পাওয়া উচিৎ। সোলেমানি অনেক মার্কিন সম্পত্তি নষ্ট করেছে, মার্কিন সেনাদের ওপরে হামলা করেছে, তার ফলে অনেক সেনা নিহত হয়েছে। এদিকে তারা ইরাকের মার্কিন দূতাবাসেও হামলা চালিয়েছে। এতে মার্কিন দূতাবাসের মৃত্যু ঘটেছে। আর এই সব কাজ করেছে সুলেমানির কুদস বাহিনী।

যেদিন সোলেমানির মৃত্যু ঘটেছে, সেদিন ট্রাম্প বারবার টুইট করে ইরানকে শাসিয়েছে। তিনি বলেছেন, ইরান হামলা করলে ,আমেরিকা তার সঠিক জবাব দেবে, সাথে এটাও বলেছেন আমরা ইরানের ৫২ টি ঘাটিতে হামলার জন্য তৈরী। এইসবের জন্য ডেমোক্রেটদের খারাপ নজরে এসেছে ট্রাম্প। তার এই সব কার্যকলাপকে তারা দায়িত্ব জ্ঞানহীন বলে দাবি করেছে।

সমস্তরকম এক্সক্লুসিভ খবর পেতে লাইক করুন

এদিকে মার্কিন ডেমোক্রেরা আরও বলেছে, এই কাজ করা ট্রাম্পের উচিত নয়। তিনি ক্ষমতার অপব্যবহার করছেন। তিনি দেশের মানুষকে না জানিয়েই যুদ্ধের ডঙ্কা বাজাচ্ছে। এতে সাধারণ মানুষের ক্ষতি। আমেরিকা কোনোভাবেই যুদ্ধ চায় না। আমেরিকার মানুষ এই পরিস্থিতির জন্য কোনো ভাবেই তৈরী নয়।

এদিকে ম্যাসাচুসেটসের সেনেটর এলিজাবেথ ওয়ারেন বলে, ইরানের ৫২ টি যে জায়গা রয়েছে, যেটা ইরানের ঐতিহ্য বহন করে চলেছে, সেখানে হামলা করে আমেরিকা নাগরিকদের যুদ্ধের পরিস্হিতির মুখে ফেলতে চাইছে।

কিন্তু ট্রাম্প এইসবের কথায় কান না দিয়ে বলেন, আমরা যে কাজ করেছি, তাতে সময় কোথায় ছিল? আমরা জঙ্গি সোলেমানির খবর পাওয়ার পরে পরেই হামলা চালিয়েছি। এখন যারা এটাকে স্বীকার করতে চাইছে না, তারা মানুষকে ভুল পথে চালিত করছে।