স্বামীর সঙ্গে সঙ্গম করতে চাইলে সঙ্গমের বদলে জুটতো মার, তারপর যা হল

প্রতীক ছবি

স্বামীর সাথে মিলনে আগ্রহী হতে চাইলেই মার খেতে হচ্ছে স্ত্রীকে, এমনকি ছেলের কথায় শ্বশুর ও শাশুড়ি দুজনে মিলেও পুত্রবধূকে বেধড়ক মার দিচ্ছেন। এই ঘটনা ঘটেছে আমেদাবাদে।এই ঘটনা সকলের সামনে আসে যখন ওই মহিলা পুলিশের দ্বারস্থ হন। স্বামীর সাথে যৌনমিলনে আগ্রহ হতে চাইলেই চলছে গালিগালাজ,শারীরিক নির্যাতন।

ওই বধূর কাছে জানা যায়,বিয়ের পরে সবকিছু ঠিকঠাকই ছিলো। কিন্তু গন্ডগোলের সূত্রপাত হয় 2018 সালে প্রথম সন্তান জন্মানোর পর থেকেই। সন্তান জন্মানোর পরেই বেঁকে বসে ওই মহিলার স্বামী। তিনি কোনোভাবেই মিলনে আগ্রহী হচ্ছিলেন না, তাকে অনেক বুঝিয়ে স্ত্রী পথে আনতে চাইলেও ওই ব্যক্তি ঘর থেকে বাইরে বেরিয়ে যান প্রায়ই।

একথা জানার পর ওই মহিলার শ্বশুর ও শাশুড়ি তারাও ছেলের সাথে মিলে ওই মহিলার উপর শারীরিক নির্যাতন করতেন। ওই মহিলার কথা,যৌন মিলনের কথা শুনলেই বেরিয়ে যেতেন স্বামী। 2016 সালে বিয়ে হয় তাদের।সুস্থ ও স্বাভাবিক ভাবেই চলছিল তাদের সাংসারিক জীবন। কিন্তু সন্তান জন্মানোর পরেই স্বামীর মধ্যে আচরণে অসঙ্গতি ধরা পড়ে।

সমস্তরকম এক্সক্লুসিভ খবর পেতে লাইক করুন

যৌন মিলনের কথা বললেই ওই ব্যক্তি বলেন যে তিনি ব্রহ্মচর্য হয়ে গিয়েছেন। সন্তানের প্রতি কোনো দায়িত্ব বা ভালোবাসা নেই ওই ব্যক্তির। এদিকে অত্যাচারের মাত্রা বেড়ে যাওয়ায় ওই মহিলা শেষে পুলিশের দ্বারস্থ হন। পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেন তিনি স্বামী ও শ্বশুর ও শাশুড়ির বিরুদ্ধে। পুলিশ তাদের গ্রেফতার করেছে।