নন্দীগ্রাম আন্দোলনের জন্য নাম না করে লক্ষ্মণ ছিটকে নিশানা করলেন শুভেন্দু অধিকারী

নন্দীগ্রাম আন্দোলন, সত্যিই 13 বছর আগে যে আন্দোলনের সূচনা হয়েছিল তা এক কথায় রাজ্যের ইতিহাস পুরোটাই বদলে ফেলেছিল। নতুন এক অধ্যায় রচিত হয়েছে নন্দীগ্রাম আন্দোলনের পর। নন্দীগ্রাম আন্দোলনে শহীদ হয়েছিলেন একাধিক কৃষক, যদিও সে সময় বঙ্গের বুকে বেশ কয়েকটি কৃষক আন্দোলন যে ভাবে জোরদার হয়েছিল তার মধ্যে বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ হয়ে আছে নন্দীগ্রাম ভূমি আন্দোলন।

এ বার নন্দীগ্রামের রণক্ষেত্র হয়ে ওঠার পিছনে নাম না করে সিপিএম নেতা লক্ষ্মণ শেঠকে নিশানা করলেন রাজ্যের মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। মঙ্গলবার পূর্ব মেদিনীপুর জেলার নন্দীগ্রামের শহিদ অনুষ্ঠানের স্মরণ সভায় গিয়ে রাজ্যের জলসম্পদ উন্নয়ন ও সেচ মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী নন্দীগ্রাম আন্দোলনের মূল দোষী হিসেবে তত্কালীন সাংসদকে আবারও কাঠগড়ায় তোলেন।

যদিও প্রথমবার নয় এর আগেও একাধিক বার লক্ষ্মণ সেটিকে নিশানা করে অভিযোগ তুলেছিলেন মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। মঙ্গলবার সূর্য ওঠার আগেই শহিদ বেদিতে মাল্যদান করে এদিন মঞ্চে বক্তব্য রাখতে গিয়ে নাম না করে লক্ষ্মণ শেঠকে তত্কালীন বেতাজ বাদশা বলে উল্লেখ করেন পাশাপাশি তিনি আরও বলেন সেই সময় পঞ্চায়েত অফিস ঘেরাও করা থেকে শুরু করে কেমিক্যাল হাব তৈরির জন্য নন্দীগ্রামের লোকজন বাধা দেওয়ায় তাদের শিক্ষা দিতে হবে বলে জানিয়েছিলেন।

সমস্তরকম এক্সক্লুসিভ খবর পেতে লাইক করুন