দেশের আর্থিক অবস্থা নিয়ে এবার মুখ খুলল ইউরেশিয়া গ্রুপও, দেখুন কি বলল

2019 সাল মোদী জমানার ইতিহাসে আর্থিক দিক থেকে সব থেকে পাঁচ বছর ছিল বলাই যায় কারণ সে বছর আর্থিক বাজেটের দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকে জিডিপি বৃদ্ধির হার একেবারে তলানিতে ঠেকেছিল। এমনকি গোটা বিশ্বের কপালে চিন্তার ভাঁজ পড়েছিল ভারতের অর্থনীতি নিয়ে। যদিও নতুন বছরের শুরুতেই সারা বছরটা কেমন যাবে তা আগে থেকে ঠাওর করা যাচ্ছে না কিন্তু আর্থিক শ্রীবৃদ্ধি যে খুব একটা দ্রুত গতিতে ত্রাণ নিতে হবে তাও বলা যায় না।

তবে এবার দেশের আর্থিক ক্ষয়ক্ষতির জন্য মোদী সরকারের শাসন ব্যর্থতাকে দায়ী করলেও ইউরেশিয়া গ্রুপ। সম্প্রতি ওই গ্রুপের তরফ থেকে সর্বোচ্চ দশটি ঝুঁকিপূর্ণ দেশের তালিকা প্রকাশিত হয়েছে আর সেই তালিকায় তা উঠেছেন ভারতের। তাই এ প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে দেশের আর্থিক সমস্যা নিয়ে গ্রুপের তরফে জানানো হয়েছে যেহেতু মোদী সরকারের দ্বিতীয় দফায় সামাজিক নীতি বেশি করে গৃহীত হয়েছে তাই তার ফল পড়বে চলতি বছরে।

বিভাজন এর ফলে বিদেশ নীতি ও অর্থনীতির ওপর প্রভাব পড়বে এবং দুটি দিকে ব্যাপক ভাবে ধাক্কা খাবে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছে ওই সংস্থা। এই গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা ইয়ান ব্রেমার প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে কয়েক মাস ধরে যেভাবে বিভিন্ন ইস্যুকে কেন্দ্র করে মোদী সরকার ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন সেই সমস্ত ইস্যুর কথা তুলে ধরেছেন আর তার মধ্যে অন্যতম হল জম্মু ও কাশ্মীরের উপর থেকে বিশেষ ধারা প্রত্যাহার, উত্তর পূর্ব ভারতের 19 লক্ষ নাগরিকের নাগরিকত্ব কেড়ে নেওয়া।

সমস্তরকম এক্সক্লুসিভ খবর পেতে লাইক করুন

আর এই কারণগুলির জন্য ভারতের অর্থনৈতিক বেহাল দশা এমনটাই দাবি করা হয়েছে ওই রিপোর্টে। এমনিতেই ভারতের যে অর্থনৈতিক অবস্থা ভেঙে পড়েছে তা নিয়ে অর্থনীতিবিদ থেকে বিশিষ্ট জনেরা সরব হয়েছেন।