কেরিয়ার ধ্বংসের জন্য দায়ি কে? অবশেষে মুখ খুললেন ইরফান পাঠান

অবসর নেওয়ার পর ইরফান পাঠান তার মনের সব জমানো কথা এবার প্রকাশ করলেন সবার সামনে। তার কেরিয়ারের খারাপ পরিস্হিতির জন্য তখনকার কোচ গ্রেগ চ্যাপেলকেই দায়ী করলেন তিনি। তিনি বললেন, তার ভালো ফর্ম থাকা সত্ত্বেও ,তাকে ঠিকমতো সুযোগ দেওয়া হয় নি। তিনি কোচের সাথে তখনকার নির্বাচকদেরও একসুতোয় বেঁধেছেন।

তিনি তখনকার অলরাউন্ডার ছিলেন, কিন্তু অন্যদের হিসেবে একটু বেশী তাড়াতাড়ি ক্রিকেট মাঠ থেকে দূরে সরে গেছেন। আর এটার জন্য তিনি কোচ ও নির্বাচকদেরই দায়ী করেছেন। তিনি জানিয়েছেন, কোচকে শুধু দুষলেই হবে না। এর সাথে অন্য মানে আছে। এর জন্য শুধু কোচকেই দুষলে অন্যরা বাদ পরে যাবে। আমাকে তখন সবাই বলছিল আমার নাকি সুইং হারিয়ে গেছে, কিন্তু আমি তখনও কিন্তু সুইং পাচ্ছিলাম।

টানা ১০ ওভার সুইং কারো পক্ষে করা সম্ভব নয়। তিনি আরও বলেছেন, আমার মনে পরছে সেই ২০০৮ সালের শ্রীলঙ্কার ম্যাচের কথা, সেখানে আমার পারফরম্যান্স ভালো ছিল, এমনকি আমি ম্যাচও জিতিয়েছিলাম তবুও ম্যাচ থেকে আমাকে বাদ দেওয়া হয়েছে। তাহলে ভাবুন কে ম্যাচ জেতানোর পর দল থেকে বাদ পরে? এইসবের মাধ্যমে যে ইরফান তোপ দেগেছে তখনকার নির্বাচক ও বোর্ডের উপরে তার স্পষ্ট।

সমস্তরকম এক্সক্লুসিভ খবর পেতে লাইক করুন

ইরফান পাঠান যে একসময়ের ভালো অলরাউন্ডার ছিল তা সবাই আমরা জানি। কিন্তু সে তার ব্যাটিং এর দিকে নজর দিতে গিয়ে বোলিং অ্যাকশন হারিয়ে ফেলে । আর এই কারণের জন্য তিনি গ্রেগ চ্যাপেলকে দায়ী করে। তার মধ্যে অনেকটাই কপিল দেবের মতো ছাপ ছিল, কিন্তু সেটা প্রস্ফুটিত হতে না হতেই তাকে দল থেকে বাদ দিয়ে দেওয়া হয়।