KKR-এর নজরে ইউসুফ, সঙ্গে রয়েছেন আরো যেসব ক্রিকেটার, দেখুন একঝলকে

কেকেআর চাপের মুখে কালরার বয়স বিতর্ককে কেন্দ্র করেই। কেকেআরের দুইজন প্লেয়ার -শিবম মাভি ও নীতিশ রানা কালরার সাথে বয়স জনিত কারণে নজরে রয়েছেন। বয়সজনিত কারণে যে ২২জন ক্রিকেটারকে
২০১৫ সালে নির্বাসন দেয়া হয়েছিল, তাদের মধ্যে নীতিশ রানাও ছিলেন একজন। বছর ছাব্বিশের ক্রিকেটার বয়সভিত্তিক ক্রিকেটে অংশ গ্রহণ করতে পারবেন না।

মাভির বিষয়টিও খতিয়ে দেখছে বিসিসিআই। এমন পরিস্থিতিতে ইউসুফ পাঠানকে কেকেআরে ফেরানোর চান্সেস আরো কনফার্ম হল। তার ভাই ইরফান পাঠান অবসর নিলেও খেলে যাচ্ছেন ইউসুফ পাঠান। এবার নিলামে দল পাননি ইউসুফ। তবে অভিজ্ঞ, বিগ হিটার এবং পাশাপাশি বোলিংয়ের দক্ষতার জন্য নীতিশ রানার পরিবর্তে কেকেআরে জায়গায় নিশ্চিত করে নিতে পারে ইউসুফ।তাছাড়াও আরো যে সকল প্লেয়াররা কেকেআর ম্যানেজমেন্টের দৃষ্টিতে রয়েছেন তারা হল –

রাহুল শুক্লা– মুম্বই ইন্ডিয়ান্স, দিল্লি ডেয়ারডেভিলস এবং রাজস্থানের হয়েও আগে খেলেছেন ঝাড়খণ্ডের এই তরুণ ক্রিকেটার। তিনি শিবম মাভির আদর্শ বিকল্প হতে পারেন। তবে তার পারফরমেন্স ধারাবাহিক নয়। কিন্তু যদি ফর্মে চলে আসেন তাহলে কেকেআরের হয়ে ভালো প্রদর্শন দেখাতেই পারেন।

সমস্তরকম এক্সক্লুসিভ খবর পেতে লাইক করুন

হনুমা বিহারী– কেকেআরে ভালো ব্যাটসম্যান অনেকেই রয়েছেন। তবে যে কোন পরিস্থিতি সামলানোর জন্য নীতিশ রানার পারফেক্ট বিকল্প হতে পারেন হনুমা বিহারী।

অভিমন্যু মিঠুন– জাতীয় দলের হয়ে খেলা এই প্লেয়ার মাঠে ঝড় উঠিয়েছে সৈয়দ মুস্তাক আলি ট্রফিতে। তবে এবছর কোন দল পাননি বিতর্কে নাম জড়িয়ে যাওয়ার ফলে।

কুলবন্ত খেজরোলিয়া– আরসিবি‌ এবং মুম্বই ইন্ডিয়ান্স দলের হয়ে খেললেও তিনি খুব বেশি চান্স পাননি। লেফট হ্যান্ড এই প্লেয়ারকে শিবম মাভির জায়গায় খেলালে সুযোগের সদ্ব্যবহার করবেন এরকম টা আশা করাই যায়।

মিঠুন অভিজ্ঞ প্লেয়ার, তাই শিবম মাভির জায়গায় তাকে সংযোজন করা  হলে মন্দ হবেনা।

শাহরুখ খান জানান, নীতিশ রানার বিকল্প হিসেবে কাকে বেছে নেওয়া হবে যা নিয়ে রয়েছে বেশ সংশয়। তবে খুব শীঘ্রই জট কাটবে।