উত্তপ্ত ইরান ও মার্কিন সম্পর্ক, তেহরানের সঙ্গে ফোনে কথা ভারতের

শুক্রবার বাগদাদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে যে ভাবে মার্কিন ড্রোন হামলায় নিহত হয়েছে ইরাকের সেনার এক উচ্চপদস্থ আধিকারিক তার পর থেকে দফায় দফায় পাকিস্তান ও ইরানের সম্পর্ক তিক্ত হয়েছে। শনিবার কয়েক ঘণ্টার মোকদ্দমায় আমেরিকার ওপর বদলা নেওয়ার চেষ্টা করেছে ইরান।

আসলে কোনও ভাবেই ইরানের মিলিটারি প্রধান কাসেম সুলেমানের মৃত্যু সে দেশের সরকার মেনে নিতে পারছে না আর তাই এক প্রকার তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের সম্ভাবনাও জারি হয়েছে আর এর মধ্যে চিন্তার ভাঁজ ভারতের কপালে।আসলে যেভাবে ইরান ও মার্কিন সম্পর্ককে কেন্দ্র করে আরব ও তার আশে পাশের দেশে উত্তেজনার আগুন ছড়িয়েছে তাতে চিন্তিত ভারত।

ইতিমধ্যেই ভারত ফোনে তেহরানের সঙ্গে কথাও সেরেছে, বিদেশ মন্ত্রকের মন্ত্রী টুইট করে জানিয়েছেন সে দেশের বিদেশমন্ত্রীর সঙ্গে ফোনে কথা হয়েছে তাই যে পরিমাণ উত্তেজনা ছড়িয়েছে তাতে খুবই চিন্তিত আমরা, পাশাপাশি তিনি আরও জানিয়েছেন এই নিয়মিত তেহরানের সঙ্গে যোগাযোগ রাখা হবে। ইরানের সামরিক বাহিনীর প্রধানের মৃত্যুর পর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে হুঁশিয়ারি দিয়েছে ইরাক।

সমস্তরকম এক্সক্লুসিভ খবর পেতে লাইক করুন

সে দেশের প্রেসিডেন্ট আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র এর ফল ভুগতে হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন যদিও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প কোনো অংশেই কমতি নেই তিনিও ইরানে 52 টি টার্গেট তৈরি করে রেখে দিয়েছেন। তাই তো রবিবার ক্ষিপ্ত ইরান মসজিদের ওপর লাল পতাকা উড়িয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে প্রকার যুদ্ধ ঘোষণার ইঙ্গিত দিয়েছে।