অভিনন্দনকে নিয়ে ফের মুখ খুললেন প্রাক্তন বায়ুসেনা প্রধান বি এস ধানোয়া

গত বছরের ফেব্রুয়ারি মাসেই বালাকোট এয়ার স্ট্রাইক করে যে ভাবে পাকিস্তানের জঙ্গি ঘাঁটি গুঁড়িয়ে দিয়েছিলেন ভারতীয় বায়ুসেনার তা নিতান্তই প্রশংসার যোগ্য। বায়ু সেনাদের উপস্থিতি বুদ্ধিকে কাজে লাগিয়ে যেভাবে পাকিস্তানের মোস্ট ওয়ান্টেড জঙ্গি গোষ্ঠী ঘাঁটি গুঁড়িয়ে গিয়েছিল সেই দৃশ্য এখনও দগদগে। এরই মধ্যে ভারতের উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমান যিনি পাকিস্তানের আধুনিক জেট ফাইটারকে পুরনো মেঘ দিয়ে উড়িয়ে দিয়েছিলেন কত কল্পনার অতীত।

কিন্তু পুরাতন মেঘের বদলে যদি সেদিন রাফালের ককপিটে অভিনন্দন বর্তমান থাকতেন তা হলে বোধহয় গল্পটা অন্য ভাবে লেখা হত, এমন কি পাক সেনাদের হাতে অভিনন্দন কে কড়া পড়তে হতো না এমনটাই দাবি করলেন পাকিস্তানের প্রাক্তন বায়ুসেনা প্রধান বিএস ধানুয়া। যদিও তিনি বিতর্কে যেতে চান না তবে দেশের প্রতিরক্ষাকে মজবুত করতে রাফালের প্রয়োজন অনেক দিন আগেই ছিল বলেই মন্তব্য করেছেন।

মধ্যেই রাফাল যুদ্ধবিমান নিয়ে যে ভাবে দেশ জুড়ে ব্যাপক শোরগোল শুরু হয়েছে এবং রাফাল যুদ্ধবিমান ইতিমধ্যেই ভারতের হাতে এসে পৌঁছেছে কিন্তু তা সত্ত্বেও অনেক দিন আগে থেকেই প্রয়োজন ছিল বলে মন্তব্য করেন বি এস ধানোয়া। আসলে ফলের শক্তি মেঘের তুলনায় অনেক বেশি এবং অত্যাধুনিক প্রযুক্তিতে তৈরি তা আমরা সকলেই জানি। মিরপুর ভাবে শত্রুপক্ষকে আঘাত হানতে সক্ষম সেটি তাই মন মন্তব্য করেছেন তিনি।