সোনার দাম আকাশছোঁয়া! দেখুন কোলকাতায় দাম কত হল?

শুধু ইন্ডিয়াতেই নয় গোটা বিশ্বে হুঁ হুঁ করে বাড়ছে সোনার দাম। ইরানের সেনা-কর্তার মৃত্যুকে কেন্দ্র করেই একলাফে বেড়ে গেল সোনার মূল্য। আমেরিকার ড্রোন আক্রমণে রাজনৈতিক পরিস্থিতির পরিবর্তন হতেই গোটা বিশ্বে সোনার দাম প্রায় এক শতাংশেরও বেশি বৃদ্ধি ‌পায় ।

কলকাতায় ৪০ হাজার টাকা ছাড়ল সোনার দাম। শুক্রবার শহরে প্রতি দশ গ্রাম চব্বিশ ক্যারেট পাকা সোনার দাম গত দিনের চেয়ে ৮৪৫ টাকা বেড়ে দাম হয়েছে ৪০,৫১০ টাকা। এটিই সর্বোচ্চ দাম বলেই ধারণা করা হচ্ছে।
কোলকাতায় ও সোনার দাম কখনোই এত বেশি হয়নি বলে দাবি করা হচ্ছে।

দোকানে গিয়ে স্বর্নালংকার ক্রয় করার সময় অবশ্য আরও কিছুটা অর্থ ব্যয় করতে হবে। কারণ, জিএসটির কারণে আরো তিন শতাংশ দাম এক্সট্রা অর্থাৎ ৪১ হাজার টাকা পেরিয়ে যাবে। ঐ দিন কলকাতায় ১০ গ্রাম গহনার সোনার দাম ছিল ৩৮,৪৩৫ টাকা। গতদিনের থেকে ৮০৫ টাকা বেশি। একদিনে দামের এতো হেরফের আগে খুব কমই দেখা গিয়েছে।

ক্রেতাদের মধ্যে প্রশ্ন উঠছে সেই দাম কি আরো বাড়তে পারে? স্বর্ণ ব্যবসায়ীরা জানান, এই মূল্য বৃদ্ধির কোন ব্যবসায়িক চক্রান্ত নেই। ফলে আন্তর্জাতিক বাজারে দামের হেরফের না হলে দাম শীঘ্রই কমবে।

কিন্তু সেই দাম কমাও স্থায়ী হবেনা বলে আন্দাজ করছেন গোল্ড সেলাররা। ভারত ছাড়াও গোটা বিশ্বজুড়ে আর্থিক সংকট চলছে। পূর্বেও দেখা গিয়েছে, আর্থিক সংকট বেড়ে গেলে লগ্নিকারীরাও সোনা বিনিয়োগের নিরাপদ জায়গা বিবেচনা করে তবেই সিদ্ধান্ত নেন।

কলকাতার স্বর্ণের মার্চেন্ট হর্ষদ অজমেঢ়া মনে করেন, ‘‘আমেরিকার শীর্ষক ব্যাঙ্ক ফেডারেল রিজার্ভ খুব দ্রুতই সুদের হার কমাতে পারে বলে জানা গেছে। সেরকম হলে সোনার মূল্য শীঘ্রই বাড়বে। ফলে স্বর্ণের মূল্যবৃদ্ধি ঘটবে।’’ সোনার দাম বিগত কিছু দিন থেকে বেড়েই চলেছে। লাস্ট ইয়ারে সেপ্টেম্বরের শেষের দিকে দশ গ্রাম চব্বিশ ক্যারেট স্বর্ণের মূল্য বেড়ে হয়েছিল ৩৯,৮১০ টাকা। এটিই ছিল সর্বোচ্চ দাম।পরে যদিওবা কিছুটা দর কমেছিল ।

বিশেষজ্ঞদের মতে সোনার দামবৃদ্ধির পিছনে ইরানের প্রভাব ছাড়াও অন্যান্য কারণ রয়েছে। এই বিষয়ে শঙ্কর সেন অর্থাৎ ‘অল ইন্ডিয়া জেম অ্যান্ড জুয়েলারি ডোমেস্টিক কাউন্সিলের ভাইস চেয়ারম্যান মন্তব্য করেন‘‘
সোনা সাধারণত আমদানি করতে হয় ডলারের সাহায্যে।

দেশে এবং বিদেশে সোনার দাম বাড়ার প্রধান এবং সবচেয়ে ইম্পর্টেন্ট রিজন্ হল ডলারের ক্রমবর্ধমান দাম। আন্তর্জাতিক মার্কেটে সোনার দরে পরিবর্তন যদি নাও হয় অথচ যদি ডলারের মূল্য বৃদ্ধি ঘটে তাহলেও স্বর্নের দর বেড়ে যায়। কেননা সেক্ষেত্রে সমপরিমাণ ডলার কিনতে গেলেও পূর্বের চেয়ে অধিক দাম খরচ করতে হয়।’’

সমস্তরকম এক্সক্লুসিভ খবর পেতে লাইক করুন