বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ক কেমন? অবস্থান স্পষ্ট্য করল দিল্লি

ছবিঃ সংগৃহীত

গত বছরের ডিসেম্বর মাসে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন ভারতের রাজ্যসভা এবং লোকসভায় পাস হওয়ার পর থেকে দেশ জুড়ে প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে, যেহেতু নাগরিক কত আইনের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ আফগানিস্তান ও পাকিস্তান এই তিন দেশ থেকে আশা সংখ্যালঘুদের নাগরিকত্ব দেওয়া হবে বলে ঘোষণা করা হয়েছে তাই তার পর থেকেই বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের সম্পর্ক নিয়ে কিন্তু বারবার বিভিন্ন মহলে প্রশ্ন উঠেছে।

যেহেতু নাগরিকত্ব আইন প্রণয়নের পর থেকে বাংলাদেশের দুই মন্ত্রী ভারত সফর বাতিল করেছেন। তবে তাঁদের দুই দেশের সম্পর্কের ওপর কোনো প্রভাব পড়বে না বলে জানিয়ে দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপদেষ্টা।

তবে সত্যিই যে সম্পর্কের কোনও চির ধরেনি সে বিষয়ে এক প্রকার নিশ্চিত করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তাই তো বছরের প্রথমেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী শেখ হাসিনাকে ফোন করে নববর্ষের শুভেচ্ছাবার্তা জানিয়েছিলেন তবে এবার ভারতের বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র রবিশ কুমার সরাসরি জানালেন নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয় তাই এনআরসি নিয়ে বাংলাদেশকে ভারতের অবস্থান বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে।

যেহেতু নাগরিকত্ব সংশোধনী ইস্যুতে ইতিমধ্যেই বিশ্বের অন্যান্য দেশের কাছে নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করেছে দিল্লি তাই এই আইনের মধ্য দিয়ে দেশের সংবিধানের অন্যতম পরিকাঠামো পরিবর্তন করা হবে না বলে জানালেন রবীশ কুমার।

সমস্তরকম এক্সক্লুসিভ খবর পেতে লাইক করুন