অবশেষে দিল্লিকে নিয়ে মনের কথা প্রকাশ করলেন ইমরান খান

যখন পাকিস্তান ভারতের এই ৩৭০ ধারা রদ করা নিয়ে রাষ্ট্রসঙ্ঘের মঞ্চে তাদের ক্ষোভ প্রকাশ করেছিল, কিন্তু তাতে লাভের লাভ কিছুই হয় নি। বার সেই কথাকে উল্লেখ করেই ইমরান খান বলল পাকিস্তানের থেকে ভারতের লবি বেশী শক্তীশালী আমেরিকায়।

এমনকি পাকিস্তানের ও আমেরিকার দ্বীপাক্ষিক চুক্তি নিয়েও কোনও প্রভাব পরে নি তার ওপরে। এর জন্যই এবার ইমরান খান তার মনের সেই কথা প্রকাশ করল ‘ফিজিশিয়ান্স অব পাকিস্তানি ডিসেন্ট অব নর্থ আমেরিকা’ (আপনা)-র আয়োজনে একটি অনুষ্ঠানে। সেখানে এই ৩৭০ ধারার কথা টেনে নিয়ে, এই কথাই বলেন।

সত্যি ভারতের থেকে পাকিস্তানের লবির জোড় অনেকটাই কম। ভারতের জোড়ে পাকিস্তানের ওপরে চাপ পড়েছে অনেকটাই। এতে ক্ষতি হয়েছে পাক ও আমেরিকার সম্পর্কে। গত ৫ ই আগষ্ট ৩৭০ ধারা রদ করা হয়, আর সেই কাশ্মীরের মর্যাদা তুলে নেয় ভারত।

এর পরেই পাকিস্তান দাবি করে এটা তাদের না জানিয়েই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। তবে তারা এই বিষয় নিয়ে আন্তর্জাতিক মহলে অনেক অভিযোগ জানায় কিন্তু তাতে লাভের লাভ হয় না কিছুই। তারা অনেক ধরণের চেষ্টাই করে থাকে।

এমনকি ভারত ও পাকিস্তানের এই দ্বীপাক্ষিক বিষয় নিয়ে আমেরিকাকেও মাঝখানে টেনে আনে পাকিস্তান। তাও ভারত এই নিয়ে জানিয়ে দেয়, এটা পুরোটাই ভারতের অভ্যন্তরীণ ব্যাপার এটাতে ভারত চায় না অন্য কেউ নাক গলাক।

সব করেও এই বিষয় নিয়ে কাউকে পাশে পান না তিনি, এই নিয়ে তিনি অনেকটাই গোসা করেন, আর আন্তর্জাতিক মহলে বার বার সেই প্রসঙ্গও টেনে এনেই কথা বলার চেষ্টা করে। তবে এর পরে নাগরিকত্ব আইন নিয়েও তিনি বলেন, দেশের পরিস্থিতি থেকে মানুষের নজর এড়াতে তারা যেকোনো সময়ে পাকিস্তান সীমান্তে হামলা চালাতে পারে।

আর সেটা যে বালাকোট বা সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের মতো হতে পারে সেই দিকেও ইঙ্গিত করেন। এর পরে এই নাগরিকত্ব আইন নিয়েও তিনি সমালোচনা করে অনেক জায়গায়। কিন্তু তার কথা কেউ শোনে না, এক মাত্র চীন বন্ধু ছাড়া। কারণ এখন পাকিস্তানের ওপোরে ক্ষুব্ধ সবাই, এই সন্ত্রাস কান্ড নিয়ে।

সমস্তরকম এক্সক্লুসিভ খবর পেতে লাইক করুন