BREAKING: CAA আতঙ্কে একি করলো অনুপ্রবেশকারীরা! সীমান্তে ব্যাপক উত্তেজনা

প্রতীক ছবি

দেশ জুড়ে রব উঠেছে সিএএ ও নাগরিকত্বর কারণে দেশ ছেড়ে বাইরে যেতে হবে অনুপ্রবেশকারীদের। এবার এই ভয়েই অনেকে বাংলাদেশে ফিরে যাওয়ার মত করেছে, এমনকি অনেকে চলেও গেছে। এবার সেই জন্য বিজিবির হাতে পাকরাও হল ৩০০ জন।

সারা দেশে এরকম হিংসা ছড়াচ্ছে, কিন্তু তার জন্য বাংলাদেশ ও ভারত সীমান্তে কোনও ধরণের ঝামেলা এখনও পর্যন্ত হয় নি, এমনটাই জানিয়েছেন দুই সীমান্তরক্ষী বাহিনীর ডিজি। কিন্তু সম্প্রতি দেখা যাচ্ছে এই অবস্থা।

এই অনুপ্রবেশকারী সংক্রান্ত কথা বার্তা নিয়ে দুই দেশের সীমান্তই বাহিনীর সাথে বৈঠক হয়, এবং সেখানে বলা হয়, ভারত থেকে আসা ৩০০ জনকে পাকরাও করা হয়েছে বাংলাদেশ সীমান্তে। তাদের পাকরাও করে দেখা গেছে কোনও সঠিক কাগজ পত্র নেই। তবে প্রাথমিক ভাবে বোঝা গেছে তারা বাংলাদেশের মানুষ, কাজের সূত্রে ভারতে গিয়েছিল।

নাগরিকত্ব আইন ও সিএএ নিয়ে সারা দেশে চলছে আন্দোলন, এর জন্য অনেকেই মনে করছে এই যে আইন তা শুধু মুসসলিমদের দেশ ছাড়া করার জন্যই তৈরী করা হয়েছে। এর জন্য যারা বাংলাদেশ থেকে ভারতে এসেছিল তাদের মধ্যে অনেকেই বাংলাদেশে তাদের গ্রামে ফিরে গিয়েছে।

তাই বিজিবির ডিজি বলেছেন, অনেকেই কাজের সূত্রে ও তাদের আত্মীয়ের সাথে দেখা করতে গিয়েছিল, কিন্তু তাদের কাজের শেষে তাদের গ্রামে ফিরে এসেছে। এদিকে অমিত শাহ যখন সাংসদে নাগরিকত্ব আইন পাস করানোর জন্য কারণ ব্যাক্ত করছিল তখন তিনি বাংলাদেশ ও পাকিস্তানকে একই সূত্রে গেথে ফেলে।

তিনি জানায়, পাকিস্তান ও বাংলাদেশের সংখ্যালঘুরা অত্যাচারীত হচ্ছে। এর ফলে তাদের দেশে ফিরিয়ে আনার জন্য চেষ্টা চালানো হচ্ছে। তাদের ভারতীয় নাগরিকত্ব দেওয়ার চেষ্টা চলছে। এই কথা শোনার পর হাসিনা সরকার অনেকটাই ক্ষুব্ধ।

কারণ তাদের পাকিস্তানের সাথে একই সূত্রে গাথা হয়েছে, এই কারণে হাসিনা সরকারের দুই মন্ত্রী শেষ মুহূর্তে তাদের ভারত সফর পর্যন্ত বাতিল করেছিল। পরে অবশ্য ভারতের তরফ থেকে বোঝানো হয় তারা সেই কথা শুধু পাকিস্তানকে উদ্দেশ্য করেই বলেছিল।

এদিকে সেই বৈঠকে আগের সেই বি এস এফের মাছ ধরার প্রসঙ্গও উঠে এসেছে, সেখানে তারা বিজিবির হাতে আটক হয়, এবং একজনের মৃত্যু পর্যন্ত হয়, এবার সেই নিয়ে প্রশ্ন করা হলে, বিজিবির ডিজি জানায়, সেই জওয়ানের ওপর বিভাগীয় তদন্ত চলছে, সে দোষী সাব্যস্ত হলে তার ওপরে উপযুক্ত পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

সমস্তরকম এক্সক্লুসিভ খবর পেতে লাইক করুন