তুফাগঞ্জে এক বিজেপি কর্মীর ধানে আগুন দেবার অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে

কোচবিহারঃ তৃনমূল-বিজেপির চাপান উতরে উতপ্ত তুফানগঞ্জের বলরামপুর ২ নং গ্রাম পঞ্চায়েত শৈল ধুগড়ি দাস পাড়া এলাকার। এ যেন পাকা ধানে মই। অভিযোগ রাতের অন্ধকারে একদল দুষ্কৃতি স্থানীয় এক ব্যক্তির ৭ কাটা জমির ধান পুড়িয়ে দেয়। প্রকাশ সরকার নামে ওই জমির মালিকের অভিযোগ তৃনমূল আশ্রিত দুষ্কৃতিরাই এই কাজ করেছে। ঘটনায় ওই এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়েছে। যদিও তৃণমূলের বিরুধে উঠা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন স্থানীয় নেতৃত্ব।স্থানীয় পঞ্চায়েত প্রধান সুচিত্র দাস বলেন, সীমান্তের ওই এলাকাটি দুষ্কৃতিদের স্বর্গরাজ্য।

এখান থেকে নিয়মিত গরু পাচার হয়। তাই ওই দুষ্কৃতিদের অসাবধানতার কারণেই এই ধরনের ঘটনা ঘটেছে বলে অনুমান আমার। এই ঘটনার সাথে তৃণমূলের কোন যোগ নেই। তৃনমূল এই ধরনের রাজনীতি করে না।তবে ওই এলাকার স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্বর অভিযোগ শুধুমাত্র ভারতীয় জনতা পার্টি করার অভিযোগে এই ধরনের ঘটনা পরিকল্পিতভাবে তৃনমূল করেছে। বিজেপি দলের স্থানীয় নেতা নিমাই মণ্ডল অভিযোগ করে বলেন, দীর্ঘদিন থেকে আমাদের ওই কর্মীকে হুমকি দেওয়া হচ্ছিল, তাকে মাঠ থেকে ধান কাটতে বাঁধা দেওয়া হয়েছিল। আমরা প্রসাশনের দারস্থ হয়ে এর বিচার চাইবো। একেই সাথে বৃহত্তর আন্দোলনে সামিল হবো।