কলকাতায় ধরা পড়লো ক্যান্সার, মুম্বাই জেতেই ক্যান্সার উধাও!

59

দুধ ব্যবসায়ী জয়রাম সিংয়ের স্ত্রীর জরায়ুতে ক্যান্সার ধরা পড়ে এক নামী ডায়গনাস্টিক সেন্টারের রিপোর্টে। রিপোর্ট পেয়ে দেরি করেননি তিনি, হাসপাতালে ভর্তি করার তাঁর স্ত্রী উর্মিলাকে। বিবেকানন্দ হাসপাতাল অ্যান্ড রিসার্চ ইনস্টিটিউটের চিকিৎসকরা রিপোর্ট অনুযায়ী চিকিৎসা শুরু করেন। দুবার কোমা দেওয়া হয়। কিন্তু শরীরের উন্নতি হচ্ছিলনা উর্মিলাদেবীর। তারপর ধারদেনা করে টাকা জোগাড় করে মুম্বাইয়ে নিয়ে যান স্ত্রীকে।

এই রকম আপডেট পেতে লাইক করুন

মুম্বইয়ের ‘বম্বে হসপিটাল অ্যান্ড মেডিক্যাল রিসার্চ সেন্টার’-এ ঊর্মিলার শারীরিক পরীক্ষা হয়। তারপর জানা যায়, ওই ডায়গনাস্টিক সেন্টারের রিপোর্ট একদম ভুল। ক্যান্সার তো নয়ই, জরায়ুতে কোনো ক্ষতিকারক সেলও নেই। মুম্বাইয়ের ওই হাসপাতাল রিপোর্টে জানিয়ে দেয়, বয়সের কারণে জরায়ুর সাধারণ রোগে ভুগছেন উর্মিলাদেবী।

রিপোর্ট হাতে পেতে স্বস্থির নিঃস্বাস ফেলেন তিনি। কলকাতা ফিরে এসে আবার আরেকটি নামী ডায়াগনস্টিক সেন্টারে স্ত্রীর শারীরিক পরীক্ষা করান। সেই রিপোর্ট মুম্বাইয়ের হাসপাতাল থেকে দেওয়া রিপোর্টে একেবারে মিলে যায়। তারপর নতুন রিপোর্টগুলি নিয়ে সেই ডায়াগনস্টিক সেন্টারে গিয়ে ক্ষতিপূরণ চান তিনি। কিন্তু সেখানকার কর্মীরা তাড়িয়ে দেয় তাঁকে।

তিনি ভেবে নিয়েছিলেন এর জবাব নিয়েই ছাড়বেন। তারপর তিনি ক্রেতা সুরক্ষা আদালতের জেলা ফোরামে মামলা ঠোকেন। কিন্তু সেই আবেদনটি খারিজ করা হয়। এরপর মির্জা গালিব স্ট্রিটে ক্রেতা সুরক্ষা আদালতের রাজ্য ফোরামের দ্বারস্থ হন তিনি। ওই আদালত রিপোর্টগুলি খতিয়ে দেখার পর শেষ পর্যন্ত ওই আদালত জয়রামকে ১ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে। দুমাসের মধ্যে ক্ষতিপূরণ দিতে হবে বলে জানিয়েছে আদালত।

এই রকম আপডেট পেতে লাইক করুন