স্ত্রীর মর্যাদার দাবীতে যুবকের বাড়ির সামনে ধর্নায় যুবতী, তারপর যা হল চমকে যাবেন

299
স্ত্রীর মর্যাদার দাবীতে যুবকের বাড়ির সামনে ধর্নায় যুবতী, তারপর যা হল চমকে যাবেন

কোচবিহার: স্ত্রীর মর্যাদার দাবীতে যুবকের বাড়ির সামনে ধর্নায় বসা যুবতীকে তুলে দিল পুলিশ। এদিকে এই ঘটনায় তুলকালাম পরিস্থিতির সৃষ্টি হয় এলাকায়। হঠাৎ করেই বিবাহ নিবন্ধিকরণের প্রথম পর্ব সম্পন্ন হয়েছে এই দাবী করে এই ধর্না কর্মসূচী গ্রহণ করে সে।

এই রকম আপডেট পেতে লাইক করুন

জানা গেছে, মাথাভাঙ্গা কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ওই ছাত্রীর নাম রিচা ইসলাম। তাঁর সাথে দীর্ঘ ৪ বছর ধরে আব্দুল রোহণ নামে ওই যুবকের প্রেমের সম্পর্ক ছিল বলে দাবী তাঁর। এরপর পরিবারের লোকের সহযোগিতায় তাদের বিয়েও ঠিক হয়। তার ৩ মাস পেরোতে না পেরোতেই রিচার সাথে সম্পর্ক ছিন্ন করার চেষ্টা করে রোহণ।

রোহণের পরিবারের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তাঁরা রিচাকে গুরুত্ব দিতে নারাজ হয় বলে অভিযোগ। তাই স্ত্রী মর্যাদা ফিরে পেতে এদিন রিচা রোহণের বাড়ির সামনে ধর্নায় বসে। এদিন রিচা বলেন, আমার সাথে দীর্ঘ ৪ বছর ধরে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। পরিবারের সাথে কথা বলার পর আমাদের রেজিস্ট্রিও সম্পন্ন হয়, তারপর রেজিস্ট্রির দ্বিতীয় পর্যায়ে কাগজপত্রে সই করার দিন এলে রোহণ ও তাঁর পরিবার এড়িয়ে যায়।

তারপর তাঁর সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে নানান অজুহাতে আমাকে এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। তারপর আজ স্ত্রীর মর্যাদা ফিরে পেতে আমি রোহণের বাড়ির সামনে ধর্নায় বসতে বাধ্য হই। রোহণ বর্তমানে রায়গঞ্জের আঞ্চলিক পরিবহন দপ্তরে কর্মরত।

এদিন বাহিনীর মহিলাদের আরও অভিযোগ, এদিন যুবতীর পাশে দারাতে গেলে ওই যুবকের বাড়ির লোকেরা তাদের উপরেরও আক্রমণ করে। এদিকে ঘটনার খবর পেয়ে সেখানে ছুটে যায় কোচবিহার কোতোয়ালী থানার পুলিশ। পরে তাঁরা এসে সেখান থেকে ওই বাহিনীকে সরিয়ে দেয়। পাশাপাশি ধর্নায় বসে অসুস্থ হওয়া ওই যুবতীকে সেখান থেকে তুলে থানায় নিয়ে আসে।

এই রকম আপডেট পেতে লাইক করুন