হাসপাতালে মৃত ঘোষণা বৃদ্ধাকে, বাড়ি ফিরেই ঘটলো মিরাক্কেল

135
প্রতীক ছবি

হাসপাতাল থেকে বৃদ্ধাকে মৃত বলে ঘোষণা করে বাড়ি ফেরানো হয় রোগীকে। বাড়ি গিয়ে দেখা যায় শ্বাস চলছে বৃদ্ধার। তারপর আবার ওই বৃদ্ধাকে বোলপুর মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। তারপর মৃত্যু হয় ওই বৃদ্ধার। বৃদ্ধার বয়স ছিল ৭৮ বছর, নাম আনন্দময়ী দাস।

এই ঘটনার পর হাসপাতাল চত্বরে ব্যাপক উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে শান্তিনিকেতন থানার পুলিশ। আনন্দময়ী দাস বোলপুরের ২ নম্বর ওয়ার্ডের কুমোর পুকুর পাড়ের বাসিন্দা। অসুস্থ্য হলে তাঁকে বোলপুর মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়।

অভিযোগ করা হয়েছে, চিকিৎসক পঙ্কজ বিশ্বাস জানিয়ে দেন যে বৃদ্ধা মৃত। বৃদ্ধাকে ভর্তি করানো হয়নি বলে ময়নাতদন্ত না করেই বাড়িতে ফিরিয়ে মিয়ে যান পরিবারের লোকেরা। বৃদ্ধাকে বাড়ি নিয়ে গিয়ে মৃতার ছেলে নিতাই দাস দেখেন তাঁর মা’র এখনও শ্বাস চলছে। জলও খান তিনি।

তারপর তড়িঘড়ি করে আবার হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে দেখা যায় বৃদ্ধার মৃত্যু হয়েছে। মৃতের পরিবারের অভিযোগ, প্রথমবার নিয়ে আসার পর চিকিৎসা করলে রোগী প্রাণে বেঁচে যেতেন। চিকিৎসক পঙ্কজ বিশ্বাস বলেন, নার্ভ পাচ্ছিলেননা, তাঁর সিনিয়ররাও নার্ভ পাচ্ছিলেননা বৃদ্ধার।

তাই মৃত বলে ঘোষণা করা হয়। ঘটনাকে কেন্দ্র করে হাসপাতালে বিক্ষোপ দেখায় বৃদ্ধার পরিবারের লোকজন। ঘটনাস্থলে এসে পৌঁছায় শান্তিনিকেতন থানার পুলিশ।

এই রকম আপডেট পেতে লাইক করুন