বাংলাদেশে জঙ্গী হামলা নিয়ে চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে এলো মার্কিন রিপোর্টে

175

মার্কিন যুক্ত রাষ্ট্র সম্প্রতি এক রিপোর্ট পেশ করেছে, সেই রিপোর্ট হল কান্ট্রি রিপোর্ট অন টেরোরিজম ২০১৮। আর এই রিপোর্টে দেখা যাচ্ছে বাংলাদেশের জঙ্গী হামলা আগের থেকে অনেকটাই কমেছে। আগে যেভাবে হত জঙ্গী হামলা তা ২০১৮ সালের রিপোর্টে অনেকটাই কমেছে, কিন্তু হামলা কমলেও লেখক, ও অধ্যাপকের খুন , যা এই ১৮ সালের মধ্যেই ঘটেছে।সেই রহস্যের, খুনের কিনারা একনো হয় নি। তার তদন্ত চলছে। তাই বলা হচ্ছে জঙ্গী হামলা কমলেও তাও টুকটাক হয়েই চলেছে।

এই রিপোর্টে আরও অনেক কথাই উঠে এসেছে, এখানে দেখা গেছে এই জঙ্গী হামলার পেছনে রয়েছে আল কায়দা। কারন পুরোনো যে সব হামলা হয়েছে তার মধ্যেও এই জঙ্গী গোষ্ঠীর নাম জড়িয়ে ছিল। কারন বাংলাদেশের অধ্যাপকের ওপরে যে হামলা হয়েছিল সেটা করেছিল আল কায়দা গ্রুপের সদস্যই। এই সব এর পর থেকেই বাংলাদেশ সরকার একেবারে উঠে পরে লেগেছে এসব দমনের জন্য।

হাসিনা সরকারের নির্দেশে সন্দেহজনক মানুষকে গ্রেফতার করা, জঙ্গীদের ঘাটি গড়ে তোলা সব কিছুর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াচ্ছে। আর এই সব করা পদক্ষেপের ফলে আগের তুলনায় অনেক পরিমাণে এই জঙ্গী হামলা, ও তাদের তাবেদারী কমেছে। ২০১৫ সালে এই আলকায়দা ৪০ টি হামলা করেছিল বাংলাদেশে, তাই এই পরে হামলা গুলো যে তাদের দ্বারাই হয়েছে তা স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে।

সেই রিপোর্ট হিসেবে, যতদিন থেকে বি এন পি দের সড়িয়ে হাসিনা ক্ষমতায় এসেছে ততদিন থেকে এই সব জঙ্গী হামলার প্রতি রুখে দাড়িয়েছে, আর সেখানকার তাবড় সব জনগিদের ফাসিকাঠে ঝুলিয়েছে। সেই সরকার তাদের বিভিন্ন অভিযান চালিয়েছে আর তার ফলে অনেক জঙ্গী দম হয়েছে, যা আগের সরকারের দ্বারা সম্ভব হয় নি।

এদিকে জানা গেছে প্রতিনিয়ত জঙ্গীরা নিজেদের পসাড় জমাতে চাইছে এই বাংলাদেশে কিন্তু হাসিনা সরকার একেবারে বদ্ধ পরিকর, এই সব একেবারে গোড়া থেকে উপড়ে ফেলার জন্য।

এই রকম আপডেট পেতে লাইক করুন