কোচবিহারের হাওড়ারহাটে বিজেপি-তৃনমুল সংঘর্ষে আহত ১

111

কোচবিহারঃ ফের তৃনমুল কংগ্রেসের এক কর্মীকে বাঁশা দিয়ে পিটিয়ে মাথা ফাটিয়ে দেওয়ার অভিযোগ বিজেপির বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে কোচবিহার ১ নং ব্লকের হাওড়ারহাট বাজার চত্বরে। ওই ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয় ওই এলাকায়। আহত অবস্থায় ওই তৃনমুল কর্মীকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে কোচবিহার মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তি করেন। পরে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যায় কোতোয়ালি থানার পুলিশ। ওই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। যদিও ওই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্বরা।পুলিশ সুত্রে জানা যায়, আহত ওই ব্যক্তির নাম সুকুমার দাস। তার বাড়ি হাওড়ারহাট এলাকায়। পরিবারের অভিযোগ, মঙ্গলবার রাতে ওই এলাকায় বিজেপি আশ্রিত দুস্কৃতিরা ওই এলাকায় সন্ত্রাস চালাচ্ছে। তারপর সোমবার রাতে সুকুমার হাওড়ারহাট বাজারে গেলে তাকে বাজারে মধ্যে আটক করে বাঁশ ও চেনে দিয়ে মাথায় আঘাত করে। তাতে তার মাথা ফেটে যায়। সে বর্তমান কোচবিহার মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

এবিষয়ে তৃনমুল কংগ্রেসের নাটাবাড়ি বিধানসভার কনভেনার আশরাফুল আলি বলেন, বিজেপি সমাজ বিরোধীরা কোচবিহার জেলা জুড়ে বিভিন্ন এলাকায় সন্ত্রাস সৃষ্টি করে চলেছে। প্রতিদিন আমাদের কর্মী সমর্থকদের মারধর করছেন। প্রতিদিন রাতে হাওড়ারহাট ও জিরানপুর এলাকায় বিজেপি আশ্রিত দুস্কৃতিরা এলাকায় বোমাবাজি করে চলেছে। তারপর গতকাল রাতে সুকুমার বাজারে গেলে তাকে মারধর করে, মাথা ফাটিয়ে দেয়। সে বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। আমরা পুলিশ প্রশাসনকে জানিয়েছে অবিলম্বে অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করে এলাকায় শান্তির বজায় রাখতে হবে। তা না হলে তৃনমুল কংগ্রেস বৃহত্তর আন্দলনে নামবো।এবিষয় কোচবিহার জেলা বিজেপির সাধারণ সম্পাদক সঞ্জয় চক্রবর্তী বলেন, তৃনমূলের দুষ্কৃতী আশরাফুল আলির নেতৃত্বে হাওড়ারহাট সহ বিভিন্ন এলাকায় বোমাবাজি করে বেরাচ্ছে তৃনমূলের দুষ্কৃতিরা। তার ফলে এলাকার লোকজন অতিষ্ঠ হয়ে তাদের বিরুদ্ধে রুখে দাড়িয়েছে। গতকাল হাওড়ারহাট এলাকায় তৃনমুল আশ্রিত ওই দুষ্কৃতিরা এলাকায় তাণ্ডব চালাতে গেলে তাদেরকে তাড়া করে স্থানীয় মানুষেরা। এর সাথে বিজেপি কোন যোগ সংযোগ নেই।

এই রকম আপডেট পেতে লাইক করুন