এইসব লক্ষণ থাকলেই হতে পারে সারভাইকাল ক্যানসার, শীঘ্রই জেনে সাবধান হয়ে যান

72

মেয়েরা তাদের শরীর স্বাস্থ্য নিয়ে সচেতন নয় একেবারেই। তাই বাড়ছে সারভাইকাল ক্যানসারে আক্রান্ত মেয়েদের সংখ্যা। হিউম্যান পেপিলোমা ভাইরাসের হানাতে এই অসুখ হয়। অসুরক্ষিত যৌন সম্পর্ক হলে এই ভাইরাস দেহে প্রবেশ করে সহজেই। ২০ বছরের কম বয়সীদের এই রোগ সাধারনত হয়না।

৩৮ থেকে ৪২ বছরের মধ্যে এই রোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। তবে আরও বেশি বয়সেও এই রোগ হতে পারে। ক্যানসার বিশেষজ্ঞ সোমনাথ সরকার মনে করেন, ১০ বছর পার হলেই এই রোগ প্রতিহত করার জন্য টিকা নেওয়া যায়। এই রোগ গোপন না রেখে ধরা পড়ার পরেই চিকিৎসা করা উচিত। দেরি করে চিকিৎসা করলে প্রাণও নিতে পারে এই রোগ।

এই রোগের বিশেষ কিছু লক্ষণ দেখা যায়। যেমন অনিয়মিত পিরিয়ড, সাদা ও দুর্গন্ধযুক্ত স্রাব, তলপেটে বা কোমরে ব্যথা, মনোপজের পরেও হটাৎ রক্তপাত। যে সাবধানতা গুলি অবলম্বন করবেন সেগুলি নিচে আলোচনা করা হল।

১৮ এর আগে কন্যাসন্তানের বিয়ে দেবেননা। চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে গর্ভনিরোধক ওষুধ খাবেন। মশলা জাতীয় খাবার এড়িয়ে চলুন। পিরিয়ড চলাকালীন অতিরিক্ত রক্তপাত এবং অস্বাভাবিক ব্যথা হলে সচেতন হন। সঙ্গীর একাধিক যৌন সঙ্গী আছে কিনা অথবা সঙ্গীর কোনো যৌনরোগ আছে কিনা সোদিকতা জানুন। ধূমপান একেবারেই ছেড়ে দিতে হবে। ভিটামিন এ, সি সমৃদ্ধ ফল, শাকসব্জি বেশি করে খাবেন।

এই রকম আপডেট পেতে লাইক করুন