কোচবিহার লক্ষী প্রতিমার চাহিদা কম হতাশ মৃৎ শিল্পীরা 

155
কোচবিহার: রাত পেরোলেই ধনদেবীর আরধনা বাংলার ঘরে  ঘরে এই দেবীর পূজার প্রচলন আছে। ঘটে পটে মূর্তিতে এই দেবী পূজিত হন সর্বত্র। সাধারণ মানুষের বিশ্বাস লক্ষী ধনের দেবী। তার আরধনা করলে সমৃদ্ধি হয় সংসারে। কোজাগুলি পূর্ণিমায় এই দেবীর আরধনা হয়ে থাকে। লক্ষী পূজা উপলক্ষে জমে উঠেছে বাজার। তবে দিন পেরহলেই লক্ষী পূজা। কিন্তু সেই ভাবে বিক্রীনেই লক্ষী প্রতিমার। ধনদেবীর পূজার আগে ধোনের অভাব কি না বুঝতে পাচ্ছে না ব্যবসায়ীরা।শনিবার সকাল পর্যন্ত তেমন ভাবে বিকোয়নি লক্ষী প্রতিমা। মৃৎ শিল্পীদের আশা বিকেলের বাজার জমতে পারে। এইদিন বিকেলে যদি ঠিকঠাক মূর্তি বিক্রি হয় তাহলে কিছুটা লাভের মুখ দেখবে ব্যবসায়ীরা। খারিজা কাঁকড়িবাড়ি থেকে কোচবিহার ভবানীগঞ্জ বাজারে মূর্তি বিক্রি করতে আসা মৃৎ শিল্পী নিতাই পাল জানান, যে এবার তাদের ব্যবসায় অনেকটাই ভাটা দেখা দিয়েছে। পট ও মূর্তি কেনার প্রতি মানুষের আগ্রহ কম।
এই রকম আপডেট পেতে লাইক করুন