কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীদের মুখে হাসি ফুটতে চলেছে, দেখুন বিস্তারিত

245

5ই জুলাই পেশ হতে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকারের 2019-20 আর্থিক বছরের বাজেট, কেন্দ্রীয় সরকারেরপরবর্তী আর্থিক বাজেটে কেন্দ্রীয় সরকারের কর্মচারীদের জন্য সপ্তম বেতন কমিশনের ভিত্তিতে ন্যূনতম বেতনের বৃদ্ধি হতে পারে বলে সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে। সপ্তম বেতন কমিশন অনুসারে কেন্দ্রীয় সরকারের কর্মচারীদের ন্যূনতম বেতন বৃদ্ধি নিয়ে দীর্ঘ দিন ধরেই সরকারি কর্মচারীদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছিল।

এই রকম আপডেট পেতে লাইক করুন

সরকারি কর্মচারীদের সেই দাবিকে মান্যতা দিয়ে ইতিমধ্যেই বাজেট পেশের অনেক আগেই কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রকের তরফ থেকে একটি বৈঠক ডাকা হয়েছিল।তবে শোনা যাচ্ছে, সপ্তম বেতন কমিশন চালু হলে সরকারি কর্মচারীদের নিম্নলিখিত ক্ষেত্রে সুবিধা আরও বাড়বে-

1. সপ্তম বেতন কমিশন অনুযায়ী কেন্দ্রীয় সরকারের কর্মচারীদের ন্যূনতম বেতন করা হবে আঠারো হাজার টাকা। তা হলে সর্বনিম্ন বেতন স্তরে নিযুক্ত যেকোনো কর্মচারীর বেতন হবে আঠারো হাজার টাকা এবং প্রথম শ্রেণির আধিকারিকের বেতন শুরু হবে ছাপ্পান্ন হাজার এক শ টাকা।

2. সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত রিপোর্ট অনুযায়ী বেতন এবং পেনশনের সংশোধনের ক্ষেত্রে সব স্তরের কর্মচারীদের জন্য 2.57 এর টমেটো ফ্যাক্টর লাগু করা হবে, একই সঙ্গে বেতন বৃদ্ধির হার তিন শতাংশ রাখা হবে।

3. একই সঙ্গে কেন্দ্রীয় সরকারের কর্মচারীদের গ্র্যাচুইটি দশ লক্ষ টাকা থেকে বাড়িয়ে করে দেওয়া হবে কুড়ি লক্ষ টাকা, তবে এই সংক্রান্ত বিষয়ে আরও একটি সুবিধা পাবেন, ডিএ পঞ্চাশ শতাংশ হারে বাড়লে শিখেছে গ্র্যাচুইটি বাড়বে পঁচিশ শতাংশ হারে।

4. সপ্তম বেতন কমিশন অনুযায়ী পেনশন এবং পেনশন সম্পর্কিত অন্যান্য সুযোগ সুবিধার ওপর আরও বেশি করে জোর দেওয়া হয়েছে বলে খবর, তাই হসপিটাল লিভ স্পেশ্যাল ডিসএবিলিটি লিভ এবং সিক লিভ কে ওয়ার্ক রিলেটেড ইলনেস এন্ড ইনজুরি লিভের আওতায় আনা হবে।

তাই কোনও কারণে অসুস্থতার জন্য অফিসে যেতে না পারলে সেই সংক্রান্ত কাগজপত্র জমা দিলে পুরো বেতনই পাবেন কর্মচারীরা। শুধুমাত্র কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীরা এই সুবিধাগুলি নয় মোদী সরকারের বাজেট পেশে আরও অন্যান্য অনেক সুযোগ সুবিধা পেতে চলেছেন কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীরা।

এই রকম আপডেট পেতে লাইক করুন