মমতাকে ব্ল্যাকমেল করেছেন অনুব্রত মন্ডল, বিস্ফোরক দাবি ফিরহাদ হাকিমের

তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ব্ল্যাকমেইল করছেন বীরভূমের তৃণমূল জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল! সম্প্রতি অনুব্রত মণ্ডলকে নিয়ে এমন বিস্ফোরক মন্তব্য করে বসলেন তারই দলের আরেক সদস্য ফিরহাদ হাকিম। ফিরহাদ হাকিমের এই মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে স্বভাবতই রাজনৈতিক মহলে জোর গুঞ্জন শুরু হয়েছে। এমনকি দলের অভ্যন্তরেই শুরু হয়েছে মতবিরোধ।

প্রসঙ্গত, অনুব্রত মণ্ডলের বিরুদ্ধে ফিরহাদ হাকিমের অভিযোগ, তিনিই জোর করে তৃণমূলের প্রার্থী তালিকা থেকে নলহাটির বিধায়ক মইনুদ্দিন শামসের নাম বাদ দিতে বাধ্য করেছেন! মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে একরকম জোর করে ব্ল্যাকমেইল করেই তিনি এমনটা করেছেন বলে দাবি করেছেন ফিরহাদ। প্রসঙ্গত তৃণমূলের প্রার্থী তালিকা থেকে মইনুদ্দিন শামসের নাম বাদ যাওয়াতে দলের অভ্যন্তরেই বিক্ষোভ দেখা দিয়েছে।

মইনুদ্দিন শামসের অনুগামীরা দলের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে প্রবল বিক্ষোভ দেখিয়েছেন। নলহাটির সেই বিক্ষোভের রেশ কলকাতা বন্দর পর্যন্ত এসে পৌঁছেছে। কারণ সেখানে রয়েছেন তৃণমূল সংগঠনের অন্যতম সদস্য নিজামুদ্দিন শামস যিনি মইনুদ্দিন শামসের ভাই। গত সোমবার ফিরহাদ হাকিম সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, দলের প্রার্থী তালিকায় যে মইনুদ্দিন শামসের নাম নেই তা তার জানা ছিল না।

মুখ্যমন্ত্রী প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করার পর তিনি জানতে পারেন যে মইনুদ্দিন শামসের নাম তালিকা থেকে বাদ পড়েছে।এ সম্পর্কে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি উত্তর দেন, অনুব্রত মণ্ডলের জোরাজুরিতেই মইনুদ্দিন শামসের নাম বাদ দেওয়া হয়েছে। এদিকে অনুব্রত মণ্ডলের দাবি, মইনুদ্দিন শামসকে এলাকার মানুষই চান না। তাই তার নাম বাদ পড়েছে।