সামনেই নির্বাচন, ২ লক্ষ ছেলেমেয়েকে বাইক কিনতে সহজ শর্তে ঋণ দেবে রাজ্য সরকার, ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর

সামনেই বিধানসভা নির্বাচন। পশ্চিমবঙ্গের ভাগ্য পরীক্ষা হবে তাতে। আগামী একুশের নির্বাচনেই প্রমাণ হয়ে যাবে, পশ্চিমবঙ্গের মসনদে নতুন করে কোনো পরিবর্তন আসতে চলেছে কিনা। তবে ঝুঁকি নিতে কোনো মতেই রাজি নয় রাজ্য সরকার। বিরোধীরা বিভিন্ন ইস্যুর পাশাপাশি এ রাজ্যে “কর্মসংস্থানের অভাব”কেও নিজেদের ভোট প্রচারের স্ট্র্যাটেজি হিসেবে ব্যবহার করতে চাইবে।

তাই আগেভাগেই রাজ্যে কর্মসংস্থান বাড়ানোর লক্ষ্যে এক ধাপ এগোলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বুধবার নবান্নে অনগ্রসর সম্প্রদায়ের সঙ্গে‌ এ সংক্রান্ত একটি বৈঠকে অংশ গ্রহণ করে মুখ্যমন্ত্রী জানালেন, তরুণ প্রজন্মকে ব্যবসায় উৎসাহ প্রদানের জন্য সহজ শর্তে ঋণ প্রদান করবে সরকার। ব্যবসার সুবিধার্থে তারা যাতে বাইক কিনতে পারেন তার জন্য সহজ কিস্তিতে ব্যাংক থেকে ঋণ দেবে রাজ্য সরকার।

মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, রাজ্যের যুবক-যুবতীরা যাতে শাড়ি অথবা ফলের মতো বিভিন্ন জিনিসের ব্যবসা করতে পারেন তার জন্য সাহায্য করবে রাজ্য সরকার। তিনি আরো বলেছেন, রাজ্যের ছেলে মেয়েরা যাতে ব্যবসার কাজে দূর-দূরান্তে যেতে পারেন তার জন্যই এই পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। এই বাইকের পেছনে একটি স্পেশাল বক্স থাকবে। এর মধ্যেই শাড়ি অথবা ফল নিয়ে যেতে পারবেন তারা।

মুখ্যমন্ত্রীর আশা, এতে রাজ্যের প্রায় দুই লক্ষ কর্মসংস্থান হবে। মুখ্যমন্ত্রী আরো বলেছেন, করোনার জন্য দীর্ঘদিন ধরেই রাজ্যের সমস্ত মেলা বন্ধ। যার ফলে কুটির এবং ক্ষুদ্র শিল্পীরা রীতিমতো লোকসানের মুখে পড়েছেন। মুখ্যমন্ত্রী তাদের জন্য আশ্বাস প্রদান করে বলেছেন, কালী পুজোর পরেই রাজ্যে মেলার আয়োজন করার অনুমতি দেওয়া হবে। প্রয়োজনে সামাজিক দূরত্ব বিধি মেনেই বেশ কয়েকটি মেলার আয়োজন করবে রাজ্য।