বাচ্চার গলায় বাদামের খো’সা আ’ট’কে গিয়েছিলো, ৩-৪ দিন পর যা হলো…

শিশুদের শৈশবে খাওয়া-দাওয়া এবং অন্যান্য ব্যাপারে ভীষণ ভাবে যত্ন নিতে হয়। ছোটবেলায় যেহেতু শিশুরা মুখে কোন কথা বলতে পারি না তাই সামান্য ভুল শিশুদের জীবনের জন্য হানিকারক হতে পারে। ফরিদাবাদে এমন একটি বিষয় দেখা যাচ্ছে যেখানে সামান্য ভুলের কারণে দুই বছরের শিশুর জীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে।

ফরিদাবাদের সিমস হাসপাতালেই সম্প্রতি এমনই একটি ঘটনা ঘটে গেল। সেখানে একটি চীনা বাদামের খোসা আটকে গিয়েছিল দুই বছরের একটি শিশুর শ্বাস যন্ত্রের নালীতে। শিশুটিকে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয় অবস্থার অবনতি হলে। হাসপাতালে চিকিত্সকদের হস্তক্ষেপে অবশেষে শ্বাসনালী থেকে চিনা বাদামের খোসা বের করতে সক্ষম হন চিকিৎসকরা।

এই দুই বছরের শিশু একটানা কাশির যন্ত্রণায় বেশ কিছুদিন ধরে কষ্ট পাচ্ছিল। শিশুটির বাবা মা অনেক চিকিৎসা করিয়েও শিশুটিকে সুস্থ করতে পারেনি। পরবর্তী সময়ে শিশুটির প্রচন্ড জ্বর এবং শ্বাসকষ্ট শুরু হয়ে যায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করানো পরিবারের সকলে। এর পর শিশুটির বুকের এক্স-রে এবং স্ক্যান করে কোন সমস্যা ধরা যায়নি।

আরো পড়ুন: “হিজাব পড়েননি কে’ন?”, কাশ্মীরের উচ্চ মাধ্যমিক টপারকে প্র’শ্ন মৌলবাদীদের, যা বললেন ওই ছাত্রী

গত ১০ মে চিকিৎসকরা শিশুটির ব্রঙ্কোসপ করলে দেখা যায়, শিশুটির শ্বাসনালীতে আটকে রয়েছে একটি চীনা বাদামের খোসা প্রায় দুই ঘণ্টা চিকিৎসার পর শিশুটির গলা থেকে চিনা বাদামের খোসা বের করতে সক্ষম হন চিকিৎসকরা।

আরো পড়ুন: ট্রেনের ফাঁ’কা কামরায় কেঁ’দে চলেছে এক শিশু, রেল পুলিশ আসতেই উঠে এলো আসল ত’থ্য

এই পরিস্থিতিতে শিশুদের অবস্থা এতটাই খারাপ হয়ে যায় যে ফুসফুসের সমস্যা তৈরি হয়ে যায়। তবে চিকিৎসার পর শিশুটির শারীরিক অবস্থার উন্নতি ঘটে এবং আস্তে আস্তে শিশুটি স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে পারে।