তৃনমূলের দলীয় কার্যালয় ভাঙচুর ও মুখ্যমন্ত্রীর ছবি ছিঁড়ে ফেলার অভিযোগ বিজেপির বিরুদ্ধে

কোচবিহার- তৃনমূল কংগ্রেসের দলীয় কার্যালয় ভাংচুর করার অভিযোগ বিজেপির বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে নাটাবাড়ি বিধানসভার অন্তর্গত হাওড়ারহাট বাজার এলাকায়। যদিও ওই অভিযোগ অস্বীকার করেছে বিজেপির স্থানীয় নেতৃত্বরা।
তৃনমূলের অভিযোগ, আজ ভোর রাতে বিজেপি আশ্রিত কিছু দুষ্কৃতী হাওড়ার হাট বাজার এলাকায় তৃনমূলের দলীয় কার্যালয়ে ভাঙচুর করে এর পাশাপাশি আমাদের দলের পতাকা ও কিছু মমতা বন্ধ্যোপাধ্যায়ের ছবি ছিঁড়ে দেয় এবং কার্যালয়ে থাকা কিছু আসবার পত্র ভাঙচুর করেন।

এ বিষয়ে কোচবিহার জেলা তৃনমূল কংগ্রসের সভাপতি পার্থ প্রতিম রায় বলেন, আজ ভোর রাতে কিছু বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীরা আমাদের হাওড়ারহাট বাজার এলাকায় দলীয় কার্যালয়ে ভাঙচুর চালায়। ওই দলীয় কার্যালয়ে জিরানপুর ও পানিশালা অঞ্চলের মানুষ গুলো বসেন। সেই কার্যালয়ে থাকা কিছু আসবার পত্র ও দলীয় পতাকা এবং মমতা বন্ধ্যোপাধ্যায়ের ছবি ছিঁড়ে ফেলে। আমরা ইতি মধ্যে ওই এলাকায় সাধারণদের নিয়ে বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতিদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলেছি। তা আগামী দিনে জারি রাখা হবে তাঁদের সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে।

যদিও তৃনমূলের তোলা অভিযোগ অস্বীকার করে কোচবিহার জেলা বিজেপির মহিলা যুব মোর্চার সহ-সভানেত্রী অর্পিতা নারায়ন জানান, তৃনমূল কংগ্রেসে পায়ের তলার মাটি সরে গেছে।ওই এলাকার মানুষ তাঁদের উপর ক্ষিপ্ত। সেই কারনে তারা ওই এলাকায় ঢুকতে পাড়ছে না।সেই কারনে তারা খবরে আসার জন্য নিজেদের দলীয় কার্যালয় ভেঙ্গে বিজেপির ঘারে দোষ চাপানোর চেষ্টা করছে। কারন বিজেপি এই ধরনের কাজকে সমর্থন করে না। ওই ঘটনায় বিজেপির কেউ জড়িত নয়। ওটা ভিত্তিহীন অভিযোগ।