৩০ জুন প’র্য’ন্ত পিএসসি-র সব ধরনের লি’খি’ত প’রী’ক্ষা বা’তি’ল

বাড়ছে করোনা সংক্রমণ ।এবার করোনার দ্বিতীয় ঢেউ আছড়ে পড়ায় ফের চাকরি প্রার্থীদের অপেক্ষার প্রহর আরও বাড়বে বলে মনে করা হচ্ছে।এদিকে গতবারের মতো এবারের পরিস্থিতি কিছুটা আলাদা বলে মনে করছেন পিএসসি(psc) কমিশন কর্তাদের একাংশ। কারণ গত দশবছর রাজ্যে তৃণমূল শাসিত সরকার ছিল। ২ মে ফলাফলের উপর তাই অনেক কিছু নির্ভর করছে।

শনিবার ১ মে থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত পাবলিক সার্ভিস কমিশন (পিএসসি) আয়োজিত সমস্ত লিখিত পরীক্ষা বাতিল করা হয়েছে। সংক্রমণ এড়ানোর লক্ষ্যে এই পদক্ষেপ বলে পিএসসির তরফে জানানো হয়েছে। তবে সূচি মেনেই নির্ধারিত সময়ে ইন্টারভিউ প্রক্রিয়া জারি থাকবে।

তবে প্রার্থীদের কমিশনের অফিসে আসতে হবে না। পরিবর্তে অনলাইনে এই ইন্টারভিউ প্রক্রিয়া সারবেন কমিশনের কর্তারা।পিএসসি সূত্রে খবর, ১ মে থেকে ৩০ জুনের মধ্যে একাধিক লিখিত পরীক্ষার সূচি নির্ধারিত ছিল। যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য ডব্লিউবিসিএস প্রিলিমিনারি এবং মেইন লিখিত পরীক্ষা, অডিট অ্যান্ড অ্যাকাউন্টস সার্ভিসের লিখিত পরীক্ষা এবং আরও একাধিক প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষা।

প্রসঙ্গত,করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে রাখতে পিএসসি দপ্তরের কর্মীদের হাজিরা ইতিমধ্যেই ৫০ শতাংশ করা হয়েছে। একইসঙ্গে যাবতীয় করোনাবিধি সুনিশ্চিত করতে নেওয়া হয়েছে একাধিক পদক্ষেপ।