মৃত আল কায়দা প্রধান আয়মান আল জওয়াহিরি, লাদেনের পর তিনিই ছিলেন জঙ্গি সংগঠনের প্রধান

পাক মদতপুষ্ট কুখ্যাত জঙ্গি সংগঠন আল-কায়েদার প্রধান আয়মান আল জওয়াহিরির মৃত্যু হয়েছে। ওসামা বিন লাদেনের পর জওয়াহিরিই ছিল জঙ্গি সংগঠনের প্রধান নেতা। তার নির্দেশেই আল-কায়েদার সমস্ত কার্যকলাপ সম্পন্ন হতো। আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম সূত্রে খবর, শ্বাসকষ্টজনিত রোগে ভুগে মৃত্যু হয়েছে আল-কায়েদা প্রধানের। প্রতিবেদনে আরো বলা হয়েছে, একপ্রকার বিনা চিকিৎসাতেই আফগানিস্তানের কোনো এক গোপন ডেরায় মৃত্যু হয়েছে জওয়াহিরির।

উল্লেখ্য, ১৯৮৮ সালে কুখ্যাত জঙ্গি নেতা ওসামা বিন লাদেনের সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে আল-কায়েদার প্রতিষ্ঠা করেছিল মিশরীয় চিকিৎসক আয়মান আল জওয়াহিরি। লাদেনের মৃত্যুর পর জওয়াহিরিই হয়ে উঠেছিল আল কায়দার প্রধান। বিশিষ্ট সংবাদমাধ্যম আরব নিউজের দাবি যদি সত্য হয়, তাহলে আল কায়দা জঙ্গী সংগঠনটি যে প্রধান নেতার অভাবে বর্তমানে বেশ বিপাকে পড়েছে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

পাকিস্তান এবং আফগানিস্তানের একাধিক সংবাদ সূত্র উল্লেখ করে আরব নিউজের তরফ থেকে দাবি করা হয়েছে, দীর্ঘ বেশ কিছুদিন ধরেই অসুস্থতায় ভুগছিলো আল কায়দার প্রধান। মার্কিন সেনাবাহিনীর নজর তার উপর থাকার জন্য বাইরে চিকিৎসার জন্য যেতে পারেনি জওয়াহিরি। এই একপ্রকার বিনা চিকিৎসাতেই মৃত্যু হয়েছে আল-কায়েদা প্রধানের। উল্লেখ্য, আল-কায়েদা তরফ থেকে অবশ্য এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করা হয়নি।

এদিকে ইসরাইলের ঘাতক গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদের হামলার মুখে পড়ে প্রাণ হারিয়েছে আব্দুল্লাহ আহমেদ অব্দুল্লাহ ওরফে আবু মোহাম্মদ আল মাসরি। বিশিষ্ট সংবাদ মাধ্যম সূত্রে খবর, আমেরিকার নির্দেশে কুখ্যাত ঘাতক গুপ্ত সংস্থা মোসাদের সদস্যরা ইরানের রাজধানী তেহরানের রাস্তায় গাড়ির মধ্যে আব্দুল্লাহ এবং তার মেয়েকে গুলি করে হত্যা করেছে। উল্লেখ্য, জওয়াহিরির পর আব্দুল্লাহই ছিল আল কায়েদার দ্বিতীয় শক্তিশালী ব্যক্তি। তাই পরপর দুই প্রধান নেতাকে হারিয়ে বর্তমানে বেশ বিপাকে পড়েছে জঙ্গি সংগঠনটি।