“বিজেপির ভ্যা’কসি’নকে বিশ্বাস করবেন না”, ক’রো’নার টিকা নিতে নারাজ অখিলেশ যাদব

গত শনিবার কোভিড ভ্যাকসিনের ড্রাই রান অর্থাৎ মহড়া চালু হয়েছে দেশজুড়ে। দেশবাসীকে গণহারে ভ্যাকসিন প্রদানের আগে দেশের প্রতিটি রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের প্রত্যেক জেলায় স্বেচ্ছাসেবকদের শরীরে চূড়ান্ত মহড়া দেওয়ার কাজ শুরু হয়েছে। এদিকে অক্সফোর্ড ও অ্যাস্ট্রাজেনেকার তৈরি কোভিশিল্ড ভ্যাকসিনকে ছাড়পত্র দেওয়ার চিন্তাভাবনা চলছে। অপরদিকে ভারতে আবিষ্কৃত কোভ্যাক্সিনও বিশেষজ্ঞদের তরফ থেকে ছাড়পত্র পেয়ে গিয়েছে।

অর্থাৎ এখন শুধু কেন্দ্রীয় সরকারের অনুমতির অপেক্ষা। তারপরই অন্যান্য দেশের মতো ভারতবর্ষেও করোনার টিকা প্রদান কর্মসূচি চালু হয়ে যাবে। তবে এই কর্মসূচি নিয়েও শুরু হলো জোর রাজনৈতিক তরজা। “বিজেপির করোনা টিকা” নিতে রাজি নন সমাজবাদী পার্টির নেতাকর্মীরা। সমাজবাদী পার্টির সভাপতি অখিলেশ যাদব সম্প্রতি জানিয়ে দিয়েছেন, তিনি এই করোনা ভাইরাসের টিকা নেবেন না।

শনিবার বিশিষ্ট সংবাদ সংস্থা এএনআইয়ের কাছে সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে তিনি জানিয়েছেন, তিনি এই ভ্যাক্সিন নেবেন না। “বিজেপির ভ্যাকসিন” এর বিশ্বাসযোগ্যতা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন তিনি। এই নিয়ে অবশ্য রাজনীতির অন্দরমহলে জোর তরজা শুরু হয়েছে। উত্তরপ্রদেশের উপমুখ্যমন্ত্রী কেপি মৌর্য অখিলেশ যাদবকে কটাক্ষ করে বলেছেন, উনি ভ্যাকসিনে বিশ্বাস করেন না। উত্তরপ্রদেশের মানুষও তাকে বিশ্বাস করেন না।

তিনি আরও বলেন, করোনা ভ্যাকসিন নিয়ে প্রশ্ন তুলে তিনি কার্যত দেশের বিজ্ঞানী এবং চিকিৎসকদের অপমান করেছেন। এই মর্মে অবিলম্বে তার ক্ষমা চাওয়া উচিত বলে সোচ্চার হয়েছে বিজেপি। এদিকে সমাজবাদী পার্টির নেতা আশুতোষ সিনহাও অখিলেশ যাদবকেই সমর্থন করতে গিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করে বসেন। তার কথা অনুযায়ী, সমাজবাদী পার্টির সভাপতি যখন বলেছেন, তখন নিশ্চয় ভেবেচিন্তেই বলেছেন। বিজেপির ভ্যাকসিন মানুষকে নপুংসক করে দেবে! অখিলেশ যাদব ভ্যাকসিন না নিলে সমাজবাদী পার্টির অন্যান্য সদস্যরাও ভ্যাকসিন নেবেন না বলেই দাবি করছেন।