স’ব’থে’কে দামি ও’ষু’ধ কেনার জন্য হঠাৎ করেই সা’হা’য্য চাইলেন অজয় দেবগণ, কি হয়েছে অভিনেতার?

700 পরিবারকে সাহায্য অজয় দেবগণের

বলিউডের অন্যতম অভিনেতা হলেন অজয় দেবগন। তার অভিনয় চিরকালই আমাদের মুগ্ধ করে এসেছে। তার চোখের চাহনি যেন আজও রাতের ঘুম উড়িয়ে দেয় বহু নারীদের। ছেলে মেয়ে এবং স্ত্রীকে নিয়ে তার সুখের সংসার। তবে একজন ভালো অভিনেতা হবার পাশাপাশি তিনি যে একজন ভালো মানুষ তার প্রমাণ আমরা পেয়ে গেলাম কিছুদিন আগে। সিনেমার পর্দায় শুধুমাত্র নয়, বাস্তব জীবনেও এরা হলেন হিরো।

https://t.co/UHAJ5yIwsH

লকডাউন এর মাঝে যেমন মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে অনন্য উদাহরণ তৈরি করেছিলেন অভিনেতা সনু সুদ তেমনই এবার মানুষের পাশে দাঁড়াতে এগিয়ে এলেন অজয় দেবগন। একটি ছোট্ট শিশুর জন্য সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় সকলের কাছে আর্জি যাতে দেখা গেল অজয় দেবগন কে। শিশুটি স্পাইনাল মাসকুলার এট্রোফি রোগে আক্রান্ত। তার জন্য সকলের কাছে সাহায্যের অনুরোধ করলেন স্বয়ং অজয় দেবগন।

যে রোগে আক্রান্ত এই শিশুটি, তাকে সরাতে হলে প্রচুর অর্থের খরচ করতে হবে। সাধারণ মধ্যবিত্ত পরিবারের কাছে এটি একেবারেই অসম্ভব। মারাত্মক দামি এই ওষুধটির দাম প্রায় ১৬ কোটি টাকা। এটি বিশ্বের সবথেকে দামি ও শুধু বলে গণ্য করা হয়। স্বাভাবিকভাবেই একজন সাধারণ মধ্যবিত্ত ঘরের পরিবারের কাছে এটি জোগাড় করা একেবারেই অসম্ভব।

তাই ছোট্ট শিশুর সাহায্যের জন্য এগিয়ে এলেন অজয়। নিজের টুইটার থেকে শেয়ার করলেন যাবতীয় দরকারি তথ্য। সকলের কাছে অনুরোধ করলেন বাচ্চাটিকে অর্থ দিয়ে সাহায্য করতে। তিনি নিজেও কিছু সাহায্য করবেন বলে জানিয়েছেন।
এর আগে পরিচয় শ্রমিকদের সাহায্যের জন্য এগিয়ে এসেছিলেন অজয়। দুঃস্থ মানুষদের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন ৫১ লক্ষ টাকা দিয়ে। এছাড়াও ধারাবি বস্তিতে কোভিদ আক্রান্তদের চিকিৎসার জন্য তিনি দিয়েছিলেন অক্সিজেন সিলিন্ডার এবং ভেন্টিলেটরের খরচ।