বয়স ১৮ থেকে ৫০ বছর, ২ লাখ টাকা দেওয়ার ঘোষণা মমতার, করুন আবেদন এখনই

কয়েক মাস আগে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জনগণের উদ্দেশ্যে একটি কর্ম সাথী প্রকল্পের পরিকল্পনার কথা জানিয়েছেন। রাজ্য সরকারের এই প্রকল্পের বিজ্ঞপ্তির ফলে প্রতিবছর প্রায় এক লাখ বেকার যুবক-যুবতী উপকৃত হবে বলে মনে করা হয়েছিল। সম্প্রতি এই আবেদন পত্র খতিয়ে দেখতে জেলা এবং ব্লক স্তরে গঠন করা হবে কমিটি। মূলত যুবসমাজকে আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী করে তোলার জন্য মুখ্যমন্ত্রী এই উদ্যোগ নিয়েছেন। চলতি বছরে যেখানে লাখ লাখ যুবক-যুবতী বেকার হয়েছে, সেখানে এই প্রকল্প ভবিষ্যতে যুবক-যুবতীদের মনে আশার সঞ্চার করবে বলে মনে করা হচ্ছে।

ইতিমধ্যেই এম এস এম ই দপ্তরের তরফে কর্ম সাথী প্রকল্পের বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে। ১৮ থেকে ৫০ বছর পর্যন্ত আবেদনকারীর আবেদনপত্র খতিয়ে দেখার জন্য জেলা এবং ব্লক করে তৈরি করা হয়েছে কমিটির।যে সমস্ত আবেদনকারীর বয়স ১৮ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে তারা এই প্রকল্পের জন্য আবেদন করতে পারবেন। যোগ্য আবেদনকারী কে তিন বছরের জন্য ঋণ বাবদ ২ লক্ষ টাকা মাথাপিছু অর্থ সাহায্য করবে রাজ্য সরকার। তবে একটি পরিবার থেকে কেবল মাত্র একজন আবেদন করতে পারবেন এই প্রকল্পের জন্য। আবেদনকারীকে অবশ্যই পশ্চিমবঙ্গে স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে।

কর্ম সাথী প্রকল্পের আবেদন করার জন্য কিছু গুরুত্বপূর্ণ নথি নিয়ে আসতে হবে আবেদনকারীদের। তারমধ্যে প্রয়োজন ভোটার আইডেন্টি কার্ড, আধার কার্ড, পাসপোর্ট সাইজের ছবি, ঠিকানা প্রমাণপত্র এবং শিক্ষাগত যোগ্যতার প্রমাণপত্র।এই প্রকল্পের জন্য আবেদন করা যাবে অনলাইন এবং অফলাইন উভয় ভাবে। এই প্রকল্পের জন্য অর্থমন্ত্রী এখনো পর্যন্ত বরাদ্দ করেছেন 500 কোটি টাকা। আবেদনকারীরা কর্মসাথি পোর্টালের মাধ্যমে অথবা সরাসরি আবেদনপত্র জমা দিতে পারবে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, কর্ম সাথী প্রকল্প পশ্চিমবঙ্গ সরকার কর্তৃক প্রচারিত একটি প্রকল্প, যার দ্বারা ভবিষ্যতে বহু বেকার যুবক যুবতীরা কর্মসংস্থানের জন্য আবেদন করতে পারবে। এবং সব কর্মসংস্থানের জন্য তাদেরকে ঋণ দেওয়া হবে সরকারের তরফ থেকে। এই প্রকল্প দ্বারা প্রতিবছর প্রায় এক লক্ষ বেকার যুবক-যুবতীদের উপকৃত হতে পারবে রাজ্য সরকার।