লকডাউনকে সাক্ষী রেখে, মাস্ক পরে ছাদনা তলায়, অনাড়ম্বরে বিয়ে সারলেন পাত্র-পাত্রী

সারাদেশের সঙ্গে মালদা জেলাতেও চলছে লকডাউন। দুই পরিবারের সম্মতিতে বিয়ের দিনক্ষণ ঠিক হয়েছিল ৪ বৈশাখ। আনন্দের সাথে বিয়ের কেনাকাটা শুরু করেছিলেন দুই পরিবারের সদস্যরা। ইতিমধ্যে ঘোষণা হয় লকডাউন। বিয়ের দিন বাতিল করতে বাধ্য হন পাত্র-পাত্রীর পরিবার।অবশেষে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে মাত্র চার থেকে পাঁচজন দাঁড়িয়ে থেকে পুরোহিতের মন্ত্র উচ্চারণে পাত্র-পাত্রীর বিবাহ সম্পন্ন করা হবে। শুক্রবার রাতে মালদা শহরের ৩ নং গভ: কলোনিতে বিয়ের আয়োজন করা হয়। ছিল না ব্যান্ড পার্টি ছিল না হুল্লোড় বরযাত্রীর।

পুরোহিত এবং পরিবারের কয়েকজন এর সামনে পাত্র-পাত্রীর বিবাহ সম্পন্ন হয়। পাত্র এবং পাত্রী মাস্ক পরে ছাতনা তলায় বসে বিয়ের নিয়ম পালন করেন। পুরহিত মাস্ক পড়ে বিয়ের মন্ত্র উচ্চারণ করেন।মালদা শহরের ৩ নং গভ: কলোনির বাসিন্দা কস্তুরাভ বর্ধনের পাত্রী বিদিশার বিয়ে ঠিক হয় মালদা শহরের গৌর রোড এলাকার বাসিন্দা সূর্যকান্ত মণ্ডলের পাত্র সুমিত মন্ডল এর সঙ্গে।পাত্রী বিদিশার বাবা-মা জানিয়েছেন, অনেক স্বপ্ন ছিল বিয়েকে কেন্দ্র করে।

প্রায় ৬৫০ জনকে নেমন্তন্ন করা হয়েছিল বিয়ে উপলক্ষে। করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সারাদেশের সঙ্গে মালদা জেলাতেও চলছে লকডাউন এই পরিস্থিতিতে ভালো অনুষ্ঠান করে বিয়ে দেওয়া হলো না। একটা দিন ঠিক হয়ে যাবার পর সেটার পরিবর্তে শুক্রবার কয়েকজনকে নিয়ে মেয়ের বিয়ে দিলেন তারা।

এদিন দেখা যায় বিয়ে বাড়িতে যে কজন ছিলেন তারা প্রত্যেকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখেন এবং মাস্ক ব্যবহার করেন। মাত্র কয়েক জনের সামনে পাত্র-পাত্রীর বিবাহ সম্পন্ন করেন পুরোহিত।পুরোহিত এবং পাত্র-পাত্রীও মাস্ক ব্যবহার করেন। লকডাউন এর ফলে কোনমতে সারা হয় বিয়ের অনুষ্ঠান। বাতিল করা হয় ভোজের অনুষ্ঠান।

সব খবর সরাসরি পড়তে আমাদের WhatsApp  Telegram  Facebook Group যুক্ত হতে ক্লিক করুন