শুভেন্দুর সাথে দেখা, এরপরেই রুদ্রনীলের মন্তব্য “শুধু সময়ের অপেক্ষা”, আরো বাড়লো জল্পনা

একুশের বিধানসভা নির্বাচনের প্রেক্ষাপটে রাজ্য রাজনীতি এখন দলবদল প্রসঙ্গে রীতিমতো উত্তাল। এই দলবদলের মরসুমে তৃণমূলের পাল্লার তুলনায় বিজেপি শিবিরের পাল্লা ভারী হচ্ছে। তৃণমূলের “বেসুরো” নেতাকর্মী, বিধায়ক, সাংসদেরা তৃণমূলের অবিরাম দুর্নাম করে বিরোধী বিজেপি শিবিরের প্রতি আস্থা জ্ঞাপন করছেন। এদের মধ্যে অন্যতম হলেন টলিউড অভিনেতা রুদ্রনীল ঘোষ।

বিগত প্রায় দেড় বছর ধরেই তৃণমূল দল ছাড়া রুদ্রনীল ঘোষ। ২০১৯ সালের মাঝে মাঝে সময় থেকেই তৃণমূল দলের সঙ্গে তার দূরত্ব বেড়েছে। সিন্ডিকেট রাজ, কাট মানি প্রসঙ্গে দলের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ ছিল তার। একুশের ভোট মঞ্চকে কেন্দ্র করে তৃণমূল দলের অভ্যন্তরে ভাঙ্গনের হাওয়া লেগেছে। সেই হাওয়াতেই নিজেকে ভাসাচ্ছেন রুদ্রনীল ঘোষ। বিজেপি শিবিরের সঙ্গে তার ঘনিষ্ঠতা রাজনৈতিক শিবিরের নজর এড়াচ্ছে না।

সাম্প্রতিক কালে নিজের এক বন্ধুর জন্মদিনের অনুষ্ঠানে তৃণমূল শিবিরের প্রাক্তন সদস্য এবং বিজেপি শিবিরের নবাগত সদস্য শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে দেখা করেন তিনি। সেখানে তাদের মধ্যে বেশ কিছুক্ষণ কথা হয়েছে। রুদ্রনীল জানিয়েছেন, এবার তিনি রাজনীতিতে সক্রিয় ভাবে অংশগ্রহণ করতে চান। রুদ্রনীলের বক্তব্য অনুযায়ী, আপাতত অভিনয় জগতে তার কিছু কাজ রয়েছে।

অভিনয় জগতের সকল কাজ শেষ করে আগামী ফেব্রুয়ারি মাস থেকেই সক্রিয় রাজনীতিতে নামতে চলেছেন রুদ্রনীল ঘোষ। প্রসঙ্গত, তৃণমূল দলের প্রতি তার ক্ষোভ লক্ষ্য করে কংগ্রেসের তরফ থেকে আগেই দলবদলের প্রস্তাব পেয়েছিলেন তিনি। তবে আপাতত তার পছন্দের তালিকায় প্রথমে রয়েছে বিজেপি শিবির। সাম্প্রতিককালের ঘটনাবলী থেকে তেমনটাই অনুমান করা হচ্ছে।