দেশের প্রায় ৪০ শতাংশ মানুষ সংক্রমিত হয়েও সুস্থ, চাঞ্চল্যকর রিপোর্ট দিল ICMR

দেশজুড়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে বই কমছে না। সরকারি হিসাব অনুযায়ী দেশে এই মুহূর্তে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৫০ লাখেরও বেশি। তবে সম্প্রতি করোনা আক্রান্ত সম্বন্ধে আইসিএমআরের তরফ থেকে এক চাঞ্চল্যকর রিপোর্ট পেশ করা হল। আইসিএমআরের রিপোর্ট অনুযায়ী, দেশের প্রায় ৪০ শতাংশ মানুষ নিজের অজান্তেই করোনা সংক্রমিত হয়েছেন। তবে বিনা চিকিৎসায় তারা সুস্থও হয়ে গেছেন। উদ্বেগের বিষয় হলো, সংক্রমনের কোনো উপসর্গ নেই তাদের শরীরে। অথচ শরীরে ভাইরাস বহন করছেন তারা।

গত মে-জুন মাসে চালানো একটি সমীক্ষার উপর ভিত্তি করে সম্প্রতি আইসিএমআর এই রিপোর্ট পেশ করেছে। রিপোর্টে স্পষ্ট বলা রয়েছে, দেশে এই মুহুর্তে ঠিক কতজন করোনা সংক্রামিত হয়েছেন তা নিশ্চিতভাবে বলা সম্ভব নয়। দেশের প্রতিটি মানুষকে এখনো অব্দি করোনা টেস্টের আওতায় আনা সম্ভব হয়নি। ফলে কতজন করোনা সংক্রমিত হয়েছেন বা বিগত কয়েক মাসে করোনার কারণে ঠিক কত জনের মৃত্যু হয়েছে সে সম্পর্কে নিশ্চিত নয় আইসিএমআর।

দুই মাস ধরে দেশের ৬৮টি জেলার ৬৪,৬৮,৩৩৮ জন বাসিন্দার উপর সমীক্ষা চালিয়ে ইন্ডিয়ান জার্নাল অফ মেডিক্যাল রিসার্চে যে রিপোর্ট পেশ করা হয়েছে সেই রিপোর্ট মোতাবেক, ভারতের বিপুল সংখ্যক বাসিন্দার এখনো অব্দি আরটিপিসিআর বা অ্যান্টিজেন টেস্ট করা সম্ভব হয়নি। অতএব ধরে নেওয়া হচ্ছে ইতিমধ্যেই এরা করোনা সংক্রমিত হয়ে সুস্থ হয়ে গেছেন। পাশাপাশি যারা মারা গেছেন তারাও ঠিক কি কারনে মারা গেছেন তার কোনো রেকর্ড নেই।

আইসিএমআর এর রিপোর্ট প্রকাশ্যে আসতেই উদ্বেগ বেড়েছে স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের। এই পরিস্থিতিতে পরবর্তি পদক্ষেপ সম্পর্কে আলোচনা করতে বিগত ২৪ ঘন্টায় জন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের সাথে দফায় দফায় বৈঠকের আয়োজন করেছেন স্বাস্থ্য ভবনের কর্তারা।রাজ্যের স্বাস্থ্য অধিকর্তা ডা. অজয় চক্রবর্তী জানিয়েছেন, আগামী কয়েক মাসে সংক্রমণ আরো বাড়বে। অতএব এখন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের মূল উদ্দেশ্য মৃত্যু হার কমানো। ইন্ডিয়ান পাবলিক হেলথ অ্যাসোসিয়েশনের সম্পাদক ডা সংঘমিত্রা ঘোষের মতে, সংক্রমণ আরো বাড়লে আগামী দিনে কিছু জনগোষ্ঠীর মধ্যে স্বাভাবিক প্রতিরোধ ক্ষমতা গড়ে উঠবে।

সব খবর সরাসরি পড়তে আমাদের WhatsApp  Telegram  Facebook Group যুক্ত হতে ক্লিক করুন